আপডেট :»Saturday - 23 September 2017.-
  বাংলা-
পুরানো সংখ্যা খোঁজ করুন »

সারজায় সৈয়দ অাহাদ ফাউন্ডেশন অায়োজিত কোরান তেলোয়াত প্রতিযোগীতার সেমিফাইন্যাল।

bbরিপোর্টঃশিবলী অাল সাদিক: সংযুক্ত অারব অামিরাতে অাহাদ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে তেলোয়াতে কোরান প্রতিযোগীতার অাজ সেমিফাইন্যাল রাউন্ড অানুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সেমিফাইন্যালে চুড়ান্ত প্রতিযোগীতায় অাজ ৪৫ জন প্রতিযোগী প্রতিদন্ধিতা করবেন। তৎমধ্যে ছেলে ক্যাটাগড়িতে ১৫ জন, মেয়ে ক্যাটাগড়িতে ১৫ জন,হিফজুল কোরান ক্যাটাগড়িতে ১৫ জন।সারজাস্থ হোদায়বিয়া রেস্তোরার কনভেনশন হলে এই প্রতিযোগীতা অানুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগীতার শুরুতে ৪ শতাধিক প্রতিযোগী তেলোয়াতে কোরান প্রতিযোগীতায় অংশ গ্রহন করেছিল। অাবুধাবী, অাল অাইন, রাস অাল খাইমা,সারজাতে অডিশন রাউন্ডে এ ৪ শতাধিক প্রতিযোগী অংশ গ্রহন করে। সেখান থেকে মূল প্রতিযোগীতার জন্য উত্তীর্ণ হয় ৯০ জন। যারা প্রথম রাউন্ডে অংশ গ্রহন করেছিল।সেখান থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডে উত্তীর্ণ হয় ৭০ জন।দ্বিতীয় রাউন্ডে প্রতিদন্ধিতার পর এখন ৪৫ জন সেমিফাইন্যালে প্রতিদন্ধিতা করবেন। অাগামী ১০ জুন সারজায় রেডিসন হোটেলের বল রুমে অনুষ্ঠিত হবে ফাইন্যাল রাউন্ড। ফাইন্যালে মোট ৩০ জন প্রতিযোগী প্রতিদন্ধিতায় থাকবেন।এ ৩০ জন থেকে চুড়ান্ত ভাবে বিজয়ী ঘোষনা করা হবে ১৫ জনকে। চুড়ান্ত বিজয়ীরা পাচ্ছে সৈয়দ অাহাদ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে নগত অর্থ ও গিফট হ্যাম্পার। বিশেষ করে হিফজুল কোরান ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অধিকারী পাবেন নগদ ৭ হাজার দিরহাম,দ্বিতীয় স্থান অধিকারী নগদ ৫ হাজার দিরহাম, তৃত্বীয় স্থান অধিকারী নগদ ৪ হাজার দিরহাম, ৪র্থ স্থান অধিকারী ১ হাজার দিরহাম ও ৫ম স্থান অধিকারী ১ হাজার দিরহাম। মেয়েদের ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অাধিকারী ৫ হাজার দিরহাম, দ্বিতীয় স্থান অধিকারী ৩ হাজার দিরহাম, তৃত্বীয় স্থান অাধিকারী ২ হাজার দিরহাম, ৪র্থ স্থান অধিকারী ১ হাজার দিরহাম ও ৫ম স্থান অধিকারী ১ হাজার দিরহাম । ছেলেদের ক্যাটাগড়িতে বিজয়ী ৫ জনের জন্যও সমান অর্থ নগদ প্রদান করা হবে। তাছাড়া ফাইন্যাল প্রতিযোগীতায় উত্তীর্ণ বাকী ১৫ জনকে ৫০০ দিরহাম করে নগদ অর্থ প্রদান করা হবে এবং সকল প্রতিযোগীকে গিফট হ্যাম্পার প্রদান করা হবে।ফাউন্ডেশন প্রথম রাউন্ড থেকে প্রতিযোগীদের উৎসাহ বাড়ানোর জন্য প্রত্যেক প্রতিযোগীর হাতে গিফট হ্যাম্পার তুলে দেন সৈয়দ অাহাদ ফাউন্ডেশন। প্রতিযোগীতায় কোরানের শুদ্ধ উচ্চারন বিশেষ করে (মাখরাজ),কন্ঠের ধনী,ও কোরানের প্রতি মনযোগ বা অাকর্ষন কতটুুকু তা বিচার বিশ্লেষণ করে যাচ্ছে বিচারকরা। বিচারে সম্পূর্ন নিরপেক্ষতা ও অান্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন হাফেজ কারীদের উপস্থিতি এ প্রতিযোগীতা অামিরাতে প্রবাসী মুসলিম নর নারীদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। পাশাপাশি প্রবাসী শিক্ষার্থীদের কোরানের প্রতি অাগ্রহ, ধ্যান, জ্ঞান অাসাধারন ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। উল্লেখ্য গত তিন বছর যাবত সৈয়দ অাহাদ ফাউন্ডেশন এ প্রতিয়োগীতার অায়োজন করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ কমিউনিটির অসংখ্য নেতা কর্মী এ প্রতিযোগীতাকে সফল করে তোলার জন্য দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। অামিরাতে অবস্থানরত ইসলামী চিন্তাবিদ, হাফেজ ও ওলামা মাশায়েকরা এ তেলোয়াতে কোরান প্রতিযোগীতাকে অান্তর্জাতিক মান সম্পন্ন করার লক্ষে নানা ভাবে সহয়তা করে যাচ্ছে অায়োজক প্রতিষ্টানকে। সৈয়দ অাহাদ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন সৈয়দ অাবু অাহাদ বলেন একমাত্র কোরানের প্রতি ভালবাসা এবং নতুন প্রজন্মকে কোরানের প্রতি ধাবিত করে দেয়ার লক্ষে ফাউন্ডেশনের এ উদ্যোগ । তিনি বলেন এ প্রতিযোগীতার ফলে শিক্ষার্থীদের মাঝে কোরান প্রসঙ্গে এবং ইসলাম প্রসঙ্গে ব্যাপক ধারনা তৈরীর পাশা পাশি কোরানের হকুম অাহকাম মেনে চলার প্রবনতা তৈরী হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*