Home / দেশ / সারাদেশ / অবশেষে আটক মহানগরীর ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বেলাল-

অবশেষে আটক মহানগরীর ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বেলাল-

মোঃ হাবিবুর রহমান খান, কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে বিভিন্ন অসহায় জনগণকে জিম্মি করে তাসের রাজস্ব কায়েম করে চলেছে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ২নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর বেলাল হোসেন। জায়গা দখল, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে চাঁদা দাবি, কেহ ভবন নির্মাণ, রাস্তাঘাট সংস্কারসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড করতে হলে তাকে চাঁদা দিতে হবে। অন্যথায় সকল কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়। এছাড়াও সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে বিভিন্ন হামলা ও ভাংচুরের ঘটনাও ঘটিয়েছেন তিনি। ভয়ে কাউন্সিলর বেলাল হোসেনের বিরুদ্ধে কেহই প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছিল না। এলাকার মানুষ ছিল অসহায়। সে যা বলতো তাই করতো এলাকাবাসী। এলাকায় মাদক, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ বিভিন্ন অপকর্ম চালিয়ে আসছিল এ বেলাল। তার গ্রেফতারে এলাকায় স্বস্থির নিঃস্বাস ফেলছে সাধারণ জনগণ। কুমিল্লার তোয়া হাউজিং প্রতিষ্ঠানে চাঁদার দাবিতে সহকারী সরকারি কৌঁসুলির (এপিপি) বাসভবনে গুলি, হামলা ও ভাংচুর করার দায়ে গতকাল মঙ্গলবার কাউন্সিলর বেলাল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পরপরই র‌্যাব-পুলিশ ও জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কাউন্সিলর বেলাল হোসেনকে পুলিশ আটক করে পরিস্থিতি শান্ত রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছে। মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের এপিপি অ্যাডভোকেট জামাল উদ্দিন ভূঁইয়া অভিযোগ করেন যে, তোয়া হাউজিংয়ে চাঁদার দাবিতে তার বাসভবনে গুলি, হামলা ও ভাংচুর করেছে কাউন্সিলর বেলাল হোসেনের বাহিনী। অ্যাড. জামাল উদ্দিন ভূঁইয়া আরও জানান, বাড়ির নির্মাণকাজের শুরু থেকেই বিভিন্নভাবে চাঁদা দাবি করে আসছে বেলাল। তাছাড়া গত ১০/১৫ দিন থেকে ওই কাউন্সিলর মোবাইল ফোনে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ায় আমার বাসায় ১০/১২ রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে ও ভাংচুর করে। এ ঘটনায় জেলা আইনজীবী সমিতি জরুরি বৈঠকে বসেছে। সন্ত্রাসী হামলা ও চাঁদা দাবির ঘটনার প্রতিবাদে জেলা আইজীবী সমিতি কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে কুমিল্লা কোতয়ালী থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

কুসিক নির্বাচনী সংহিসতার জের নগরীর গোবিন্দপুরে ১৪ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ
মোঃ হাবিবুর রহমান খান, কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের সহিংসতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলা ও ১৪ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে প্রতিনিয়ত হয়রানির শিকার হয়েছে। প্রভাবশালী মহলের কারণে প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না বলে মোঃ শাহীন, কাউছার, ডালিম গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিক সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে শাহীন মিয়া অভিযোগ করে বলেন- কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ শাহীন মিয়া প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। তার অপর প্রতিদ্বন্ধিতা প্রার্থী ছিলেন জাহাঙ্গীর মিয়া। জাহাঙ্গীর আলম নির্বাচনী জয় পরাজয় কে কেন্দ্র করে আমার সমর্থিত ভোটার ও শাহীনের পরিবারের লোকজনদের বিভিন্ন ভাবে ভয় ভীতি ও হুমকি দিয়ে আসছে। নির্বাচনে জয় লাভ করতে পারেনি জাহাঙ্গীর। এর জের ধরে ক্ষিপ্ত হয়ে জাহাঙ্গীর আলম এলাকার চিহ্নিত একদল সন্ত্রাসী নিয়ে গত ২৭শে মার্চ শাহিনের সমর্থকদের বাড়িতে অনাধিকারে প্রবেশ করে ঘর ও দোকানে হামলা চালিয়ে প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকা মূল্যের মালামাল ক্ষয়ক্ষতি করেছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় উপস্থিতিরা এতে বাধা দিতে গেলে ৭/৮ জনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুত্বর আহত করে উক্ত সন্ত্রাসীরা। এই ঘটনায় আহতের পরিবার কোতয়ালী মডেল থানায় ৭/৮জনকে আসামী করে লিখিত অভিযোগ করেন। এই ঘটনা ধামাচাপা দিতে এলাকার একটি কুচক্রি মহল ও একশ্রেণীর সাদা পোষাক দারী, স্বার্থনেশী মহলের সহযোগিতায় স্বাক্ষীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে শাহীনের পরিবারের লোকজন আহত ও ক্ষতিগ্রস্তসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে পুলিশী হয়রানি করছে জাহাঙ্গীর আলম ও তার বাহিনী। সাংবাদিক সম্মেলনে কাউছার ও ডালিম জানান- জাহাঙ্গীর আলম তার একটি দলবল নিয়ে ও এলাকার অসহায় লোকদের কে ভয়ভীতি দেখিয়ে মোঃ শাহীন, কাউছার ও ডালিমসহ ১৪ জনকে অভিযুক্ত করে এবং মাদক ব্যবসায়ী ও এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে অভিযোগ করে গত ২৯ মার্চ কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের নিকট একটি লিখিত আবেদন করেন। শাহিন জানান- একজন বাংলাদেশ সরকারের আয়কর দাতা সদস্য, দেশ ও সরকারের উন্নয়ন কাজে সুনামের সহিত ঠিকাদারী ব্যবসা করে আসছেন। তিনি ছাত্রলীগের সাবেক তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপসম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এছাড়াও শাহীন দীর্ঘদিন ধরে গোবিন্দপুর এলাকার খলিফা বাড়ি জামে মস্জিদের সহ-সভাপতির সুনামের সহিত অধ্যবধি দায়িত্ব পালন করে আসছেন। জাহাঙ্গীর ও তার ক্যাডার বাহিনীর বিরুদ্ধে খুন, শিশু ধর্ষন, চাদাবাজি, জমিদখল, ছিনতাইকারী পুলিশের তালিকাভূক্ত মাদক ব্যবসায়ী সহ এদের বিরুদ্ধে নানাহ অপকর্মে জড়িত এর ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে বলে সাংবাদিক সম্মেলনে অভিযোগ করেন। এ বিষয়ে ভুক্তভোগীরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

বুড়িচংয়ে ইয়াবা সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
মোঃ হাবিবুর রহমান খান, কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক সংলগ্ন ভারেল্লা ইউনিয়নের কংশনগর বাজার থেকে গত ২ এপ্রিল রাতে ইয়াবা ট্যাবলেট সহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বুড়িচং থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে অবৈধভাবে ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয়-বিক্রয় করা ও নিজ দখলে রাখার অপরাধে বুড়িচং থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুড়িচং থানার দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মোজাম্মেল হক জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার এএসআই আবু হানিফ ও সঙ্গীয় ফোর্স কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক সংলগ্ন ভারেল্লা ইউনিয়নের কংশনগর বাজারে অভিযান চালিয়ে ১৩ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ কংশনগর (পশ্চিম পাড়া) মৃত সায়েদ আলীর পুত্র মোঃ দুলালকে (৩৮) আটক করে।

চান্দিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় ভ্যান চালক নিহত
মোঃ হাবিবুর রহমান খান, কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক ভ্যান চালক নিহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলার বাগুর বাসষ্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়- গতকাল মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে রডবাহী ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কায় দিলে দেবিদ্বার উপজেলার বরকামতা গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে আব্দুল খালেক (৬০) নামে এক ভ্যান চালক বুকের ভিতরে রড ঢুকে যায়। এ সময় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে ঘটনাস্থলেই তার এই মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে বলে জানা যায়।

About

আরও পড়ুন...

শার্শা উপজেলা ও বেনাপোল পৌর ছাত্রলীগের উদ্যোগে অসহায় মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

বেনাপোল প্রতিনিধি: পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে শার্শার সংসদ সদস্য …

error: বাংলার বার্তা থেকে আপনাকে এই পৃষ্ঠাটির অনুলিপি করার অনুমতি দেওয়া হয়নি, ধন্যবাদ