Home / দেশ / অবশেষে গ্রেফতার হলো হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে কটুক্তিকারী শিক্ষক

অবশেষে গ্রেফতার হলো হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে কটুক্তিকারী শিক্ষক

মোঃ হাবিবুর রহমান খান,কুমিল্লা প্রতিনিধি- হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে নাস্তিকসহ ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে কটুক্তিকারী শিক্ষককে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপরদিকে, তার বিচার দাবিতে ইমাম-মুয়াজ্জিন সমিতি উপজেলা প্রশাসনকে স্মারকলিপি প্রদান করে ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবিতে ২৪ ঘন্টার আলটিমেটাম দিয়েছে। আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে উপজেলা ও থানা প্রশাসন বিভিন্ন দল ও আলেম-ওলামাদের সাথে দফায় দফায় বৈঠক করছেন। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে স্কুল ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।
মুহাম্মদ (সাঃ) ও ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে কটুক্তিকারী শিক্ষক কৃষ্ণচন্দ্র সরকারকে আইজিপির নির্দেশে গতকাল দক্ষিন সাহাপাড়ার তার বাসা থেকে গ্রেফতার করেছে লাকসাম থানা পুলিশ। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশের এএসপি সার্কেল (দক্ষিণ) মোঃ ইলতুৎমীশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে জরুরী বৈঠক করেন। এ ব্যাপারে লাকসাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাদী হয়ে মামলা করেছে। এলাকার আলেম সমাজ ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানসহ জনমনে ক্ষোভ ও টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।
উল্লেখ্য, গত সোমবার দশম শ্রেণীর ইংরেজি ক্লাসের সময় স্কুলের সহকারী শিক্ষক কৃষ্ণ চন্দ্র সরকার হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে একজন নাস্তিক, মক্কা-মদীনা শয়তানের আড্ডাখানা, সৌদি আরব শয়তানের দেশ, আল্লাহকে আমি ভয় পাই না, মুসলমানরা মক্কা-মদীনা গিয়ে পূজা-অর্চনা করতে যায় বলে মন্তব্য করেন। এছাড়া ওই শিক্ষক ইসলাম ধর্ম সম্বন্ধে বিভিন্ন কটুক্তি করেন। এ সময় ওই ক্লাশের এক ছাত্র প্রতিবাদ করলে শিক্ষক কৃষ্ণ চন্দ্র সরকার তাকে বেত্রাঘাত করেন। ওইদিনই ছাত্ররা বিষয়টি প্রধান শিক্ষক শাহজাহান মোল্লার নিকট লিখিতভাবে জানায়। প্রধান শিক্ষক দু’দিনেও কোন ব্যবস্থা না নিয়ে ওই শিক্ষকের পক্ষে অবস্থান নেয় এবং ছাত্রদের ধমক দেয় বলে ছাত্ররা অভিযোগ করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে গত বুধবার ছাত্ররা ক্লাশ বর্জন করে বিক্ষোভ প্রদর্শন ও অফিস ঘেরাও করে রাখে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শ’ শ’ জনতা স্কুল গেইটে বিক্ষোভ করতে থাকে।

আরও পড়ুন...

নগরীতে জেএসইউএস ও সিডিডি আয়োজিত প্রতিবন্ধিতা ও একীভূত উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের নিয়ে কর্মরত জাতীয় সংগঠন সেন্টার ফর ডিজএ্যাবিলিটি ইন ডেভেলপমেন্ট (সিডিডি) ও সিবিএম এর সহযোগিতায় বেসরকারী মানব উন্নয়ন মূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন যুগান্তর সমাজ উন্নয়ন সংস্থা (জেএসইউএস)’র অংশগ্রহণে “প্রতিবন্ধিতা ও একীভূত উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ”গত ১৯ নভেম্বর ২০২০ ইংরেজী নগরীর দেওয়ানবাজারস্থ সংস্থার প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে জেএসইউএস নির্বাহী পর্ষদের সদস্য ও সংস্থার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে আয়োজিত কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সহ-সভাপতি ফারজানা রহমান শিমু, সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাহী পরিচালক ইয়াসমীন পারভীন, ব্যবস্থাপনা উপদেষ্টা ও পরিচালক কবি প্রাবন্ধিক সাঈদুল আরেফীন, সহ-সাধারণ সম্পাদক আলহাজ ছাবের আহমেদ, নির্বাহী সদস্য শাহানাজ বেগম, সিনিয়র এসিসটেন্ট ডিরেক্টর এম এ আসাদ, এসিসটেন্ট ডিরেক্টর শহীদুল ইসলাম, সংস্থার শাখা ব্যবস্থাপকসহ অপরাপর কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সিডিডি-এর পক্ষ থেকে থিমেটিক এক্সপার্ট মো: জাহাঙ্গীর আলম, সিডিডি’র কোঅর্ডিনেটর ও প্রজেক্ট ম্যানেজার তানবিন আহমেদ, শাহ জালাল, জুনায়েদ রহমান, হীরা বণিক উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালায় প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক ধারণা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অন্তর্ভূক্তি, সংস্থায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অন্তর্ভূক্তি বিষয়ে ধারণা ও সকল কর্মকাণ্ডে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে সম্পৃক্তকরণের পাশাপাশি এ সংক্রান্ত কর্মপদ্ধতি নির্ধারণসহ নানা বিষয়ে আলোচনা করা হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন মো: জাহাঙ্গীর আলম। কর্মশালা পরিচালনায় মো: জাহাঙ্গীর আলম বলেন, “বর্তমান সরকারের আন্তরিকতা ও নানা উদ্যোগ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। সরকারের এ সংক্রান্ত অনেক আইন ও নীতিমালা রয়েছে। কিন্তু  সে অনুযায়ি সচেতনতা না থাকায় এর সুফল প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গ পাচ্ছেন না। আমাদের সকলের সম্মিলত প্রচেষ্টায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি সাধিত হতে পারে।” উদ্যোগ নিতে হবে আমাদের সকলকে বলে তিনি মন্তব্য করেন। এ প্রসঙ্গে সংস্থার পরিচালক কবি প্রাবন্ধিক সাঈদুল আরেফীন বলেন, “জেএসইউএস প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। সংস্থা অপরাপর কর্মসূচীতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অংশগ্রহণ এবং তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করে।” ভবিষ্যতে সকল প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধিতা ইস্যুটি সর্বাগ্রে বিবেচনা করা হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি বার্তা প্রেরক মো: আরিফুর রহমান প্রোগ্রাম ম্যানেজার (এসডিপি)