Home / দেশ / সারাদেশ / ব্রাহ্মণবাড়িয়া / আখাউড়ায় আইন লঙ্গন করে বিএসএফের কালভার্ট নির্মানের চেষ্টা

আখাউড়ায় আইন লঙ্গন করে বিএসএফের কালভার্ট নির্মানের চেষ্টা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : আন্তর্জাতিক সীমানা আইন লংঘন করে গতকাল শনিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় নোম্যান্সল্যান্ডে কালভার্ট নির্মাণ করার চেষ্টা করে বিএসএফ। এসময় বিজিবির সদস্যরা বাঁধা দিলে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় স্থলবন্দর দিয়ে প্রায় দু’ঘন্টা আমদানি রপ্তানি বন্ধ থাকে। পরে বিজিবির প্রতিরোধের মুখে পিছু হটে বিএসএফ সদস্যরা। আখাউড়া স্থলবন্দরের আইসিপি ক্যাম্পের অধিনায়ক মোঃ মমতাজ উদ্দিন বলেন, সকাল ১০টার দিকে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্গণ করে নোম্যান্সল্যান্ডের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া খালের ওপর কালভার্ট নির্মাণের চেষ্টা করে বিএসএফ। তারা ২০-২৫ জন শ্রমিক লাগিয়ে খালটি পরিস্কার করাতে থাকে। আমাদের বাঁধায় কর্ণপাত না করলে আমরা সেখানে শক্ত অবস্থান নেই। পরে বিজিবি’র তীব্র বাঁধার মুখে বিএসএফ নির্মাণ কাজ বন্ধ রেখে চলে যায়। এ ব্যাপারে আখাউড়া স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন বাবুল জানান, বিএসএফ ১৫০ মিটারের ভেতরেই নির্মাণ কাজের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। ফলে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত আমদানি রপ্তানি বন্ধ থাকে। পরে উর্ধ্বতন কর্তপক্ষের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হলে বন্দরের কার্যক্রম আবারো শুরু হয়। এ ব্যাপারে বিজিবি ১২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মাকসুদুল আলম বলেন,বিএসএফের পক্ষ থেকে খালে একটি বক্স কালভার্ট নির্মানের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। আমরা সেটি ইতিমধ্যে উর্ধ্বতন কর্তপক্ষের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছি। কিন্তু ওই প্রস্তাব পাস হওয়ার আগেই শনিবার সকালে তারা হঠাৎ শ্রমিক লাগিয়ে খালটি পরিস্কার শুরু করে। প্রথমে বাঁধা দিলেও তারা শ্রমিক সরাতে গরিমসি শুরু করে। এ অবস্থায় ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা নোম্যান্সল্যান্ড এলাকায় অবস্থান নেয়। পরে শক্ত প্রতিরোধের মুখে বিএসএফ শ্রমিক সরিয়ে নেয়। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

About

আরও পড়ুন...

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বিজয় দিবস উদযাপিত

বিজয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। ১৫ ডিসেম্বর রাতেই সরকারি বেসরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ভবন ও স্থাপনা সমূহে …

error: Content is protected !!