Home / ভিন্ন খবর / কবি সমীর চন্দ্র দাস কবিতার অঙ্গনে একজন নবীন যাত্রিক

কবি সমীর চন্দ্র দাস কবিতার অঙ্গনে একজন নবীন যাত্রিক

আল আমিন রানা ঃ কুয়েত প্রতিনিধি ……………
কবি সমীর চন্দ্র দাস কবিতার অঙ্গনে একজন নবীন যাত্রিক। কবির সম্মুখন চলারপথ ধূসর মৃত্তিকায় আবৃত। লবণ্যে কবির মানবিক সংগ্রামের ভাস্কর জেগে ওঠে। বাংলাদেশী অধ্যুষিত কুয়েতে কিছুসংখ্যক কলম সৈনিক আছেন যারা পরাধীনতার দুর্ভেধ্য প্রাচীরে বন্দি থেকেও আবহমান বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধিশালী করতে নানন্দিক দৃষ্টান্ত রাখছেন। জম্মভূমি হতে যোজন-যোজন দুরে জীবন জীবিকার তাগিদে দুর প্রবাসের কর্মরত অবস্থায় থেকেও কবি সমীর চন্দ্র দাশ সাহিত্য চর্চায় নিজেকে নিয়োজিত রাখছেন। কুয়েতে কর্মরত সাহিত্যবোদ্ধাদের এক জরিপে দেখা যায় প্রতি বছর একুশে বইমেলায় কুয়েত প্রবাসী কবি-সাহিত্যিকদের প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা দশটিরও অধিক। মোট কথায় বাংলা সাহিত্যের মাঝে বর্তমান আধুনিকতার রমরমা উদ্ভাসে যে লোডশেডিং বাসা বাঁধতে শুরু করেছে সেই লোডশেডিং সরিয়ে বাংলার মননশীল সাহিত্যকে দেদীপ্যমান শিখার মতো উদ্ভাসিত করার জন্য কুয়েত প্রবাসী বাংলা সাহিত্যিকদের প্রচেষ্টা এক কথায় অনন্য যা মূলধারার বাংলা সাহিত্যের জন্য গর্ব বৈকি।  কবি সমীর চন্দ্র দাশ, জম্ম ১৯৮১ সালে,পিতা সুভাষ চন্দ্র দাশ,মাতা মৃত রুকুনা ভালা দাশ। গ্রাম: দৌলতপুর, পোঃ অ: মুদাফরগঞ্জ বাজার,থানা:বরুড়া, জেলা কুমিল্লা,বাংলাদেশ। তিন বোন এক ভাই। বোন শিবানী,শিউলী,কাকলী। ভাই বোনের মধ্যে কবি দ্বিতীয়। কবি সমীর চন্দ্র দাশ ২০০৮ সালে পলি রানী দাশের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এক মাত্র কন্যা প্রেরালী রানী দাশ ( সুর্পন্না ) স্ত্রী কন্যাকে নিয়ে কবির ছোট সংসার। কবি প্রবাসের হাজারো ব্যবস্তার পর সাহিত্য চর্চায় নিজেকে নিয়োজিত রেখে তার প্রথম প্রকাশিত হয়। প্রথম প্রকাশ: ২১শে বই মেলা-২০১৩ সমন্বিত কাব্যগ্রন্থ “প্রবাসে নক্ষত্র” প্রথম কবিতা কুয়েতে প্রকাশিত হয় “সবাই মিলে”। দ্বিতীয় প্রকাশ: সমন্বিত কাব্যগ্রন্থ “কবিতার বন্ধন”২১শে বইমেলা-২০১৪। তৃতীয় প্রকাশ:একক কাব্যগ্রন্থ “মা আমার মা” ২১শে বইমেলা ২০১৪। কষ্ট পাই কেউ মিথ্যা বললে-সুখ পাই মানুষকে ভালবেসে-ঘৃণা করি প্রতারণা করে যে। এমন অসংখ্য কবিতা পাঠক মহলে ব্যবপ সারা পেয়েছে বলে কবি বলেন-আমার লেখা পড়ে এতোটুকু যদি কারো ভাল লাগে তাহলেই আমার লেখা স্বার্থক হবে। কবির শখ: কবিতা,গল্প,উপন্যাস,গান,নাটক,লেখা। এছাড়াও কুয়েত থেকে বিভিন্ন বাংলা ম্যাগাজিনে গল্প,কবিতা প্রকাশ হয়েছে এবং হচ্ছে। সেই ধারায় শীঘ্রই প্রকাশিত হতে যাচ্ছে কবির একটি উপন্যাস “সবাইতো ভালবাসা চায়”। এবং কাব্যগ্রন্থ “২১থেকে ১৬”। শত ব্যস্ততার মাঝেও কবির অসাধারণ কাব্য সাধনায় গতিশীল প্রাণময় কবিতা যাতে পাঠক সমাজে দীপ্ত তৃপ্ত মনজিল খুজে পায়। সেই সাথে  একুশে বইমেলায় জাতীয় সাহিত্য প্রকাশনীর স্টলে পাওয়া যাচ্ছে কবির লেখা একক কবিতার বই “ সিংহ মানব ” স্টল নং- ৩৩১,প্রকাশনায় আর-টু পাকলিকেশন ২ নন্দলাল দত্ত লেন,লক্ষীবাজার,ঢাকা-১১০০। সেই সাথে মেলায় কবির প্রথম কবিতার বই“ মা আমার মা ”পাওয়া যাবে।
কুয়েত প্রবাসী ঃ কবি সমীর চন্দ্র দাস, একক প্রকাশিত কবিতার বই দু‘টি।

কবি সমীর চন্দ্র দাস কবিতার অঙ্গনেএকজন নবীন যাত্রিকআল আমিন রানা ঃ কুয়েত প্রতিনিধি ……………কবি সমীর চন্দ্র দাস কবিতার অঙ্গনে একজন নবীন যাত্রিক। কবির সম্মুখন চলারপথ ধূসর মৃত্তিকায় আবৃত। লবণ্যে কবির মানবিক সংগ্রামের ভাস্কর জেগে ওঠে। বাংলাদেশী অধ্যুষিত কুয়েতে কিছুসংখ্যক কলম সৈনিক আছেন যারা পরাধীনতার দুর্ভেধ্য প্রাচীরে বন্দি থেকেও আবহমান বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধিশালী করতে নানন্দিক দৃষ্টান্ত রাখছেন। জম্মভূমি হতে যোজন-যোজন দুরে জীবন জীবিকার তাগিদে দুর প্রবাসের কর্মরত অবস্থায় থেকেও কবি সমীর চন্দ্র দাশ সাহিত্য চর্চায় নিজেকে নিয়োজিত রাখছেন। কুয়েতে কর্মরত সাহিত্যবোদ্ধাদের এক জরিপে দেখা যায় প্রতি বছর একুশে বইমেলায় কুয়েত প্রবাসী কবি-সাহিত্যিকদের প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা দশটিরও অধিক। মোট কথায় বাংলা সাহিত্যের মাঝে বর্তমান আধুনিকতার রমরমা উদ্ভাসে যে লোডশেডিং বাসা বাঁধতে শুরু করেছে সেই লোডশেডিং সরিয়ে বাংলার মননশীল সাহিত্যকে দেদীপ্যমান শিখার মতো উদ্ভাসিত করার জন্য কুয়েত প্রবাসী বাংলা সাহিত্যিকদের প্রচেষ্টা এক কথায় অনন্য যা মূলধারার বাংলা সাহিত্যের জন্য গর্ব বৈকি।  কবি সমীর চন্দ্র দাশ, জম্ম ১৯৮১ সালে,পিতা সুভাষ চন্দ্র দাশ,মাতা মৃত রুকুনা ভালা দাশ। গ্রাম: দৌলতপুর, পোঃ অ: মুদাফরগঞ্জ বাজার,থানা:বরুড়া, জেলা কুমিল্লা,বাংলাদেশ। তিন বোন এক ভাই। বোন শিবানী,শিউলী,কাকলী। ভাই বোনের মধ্যে কবি দ্বিতীয়। কবি সমীর চন্দ্র দাশ ২০০৮ সালে পলি রানী দাশের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এক মাত্র কন্যা প্রেরালী রানী দাশ ( সুর্পন্না ) স্ত্রী কন্যাকে নিয়ে কবির ছোট সংসার। কবি প্রবাসের হাজারো ব্যবস্তার পর সাহিত্য চর্চায় নিজেকে নিয়োজিত রেখে তার প্রথম প্রকাশিত হয়। প্রথম প্রকাশ: ২১শে বই মেলা-২০১৩ সমন্বিত কাব্যগ্রন্থ “প্রবাসে নক্ষত্র” প্রথম কবিতা কুয়েতে প্রকাশিত হয় “সবাই মিলে”। দ্বিতীয় প্রকাশ: সমন্বিত কাব্যগ্রন্থ “কবিতার বন্ধন”২১শে বইমেলা-২০১৪। তৃতীয় প্রকাশ:একক কাব্যগ্রন্থ “মা আমার মা” ২১শে বইমেলা ২০১৪। কষ্ট পাই কেউ মিথ্যা বললে-সুখ পাই মানুষকে ভালবেসে-ঘৃণা করি প্রতারণা করে যে। এমন অসংখ্য কবিতা পাঠক মহলে ব্যবপ সারা পেয়েছে বলে কবি বলেন-আমার লেখা পড়ে এতোটুকু যদি কারো ভাল লাগে তাহলেই আমার লেখা স্বার্থক হবে। কবির শখ: কবিতা,গল্প,উপন্যাস,গান,নাটক,লেখা। এছাড়াও কুয়েত থেকে বিভিন্ন বাংলা ম্যাগাজিনে গল্প,কবিতা প্রকাশ হয়েছে এবং হচ্ছে। সেই ধারায় শীঘ্রই প্রকাশিত হতে যাচ্ছে কবির একটি উপন্যাস “সবাইতো ভালবাসা চায়”। এবং কাব্যগ্রন্থ “২১থেকে ১৬”। শত ব্যস্ততার মাঝেও কবির অসাধারণ কাব্য সাধনায় গতিশীল প্রাণময় কবিতা যাতে পাঠক সমাজে দীপ্ত তৃপ্ত মনজিল খুজে পায়। সেই সাথে  একুশে বইমেলায় জাতীয় সাহিত্য প্রকাশনীর স্টলে পাওয়া যাচ্ছে কবির লেখা একক কবিতার বই “ সিংহ মানব ” স্টল নং- ৩৩১,প্রকাশনায় আর-টু পাকলিকেশন ২ নন্দলাল দত্ত লেন,লক্ষীবাজার,ঢাকা-১১০০। সেই সাথে মেলায় কবির প্রথম কবিতার বই“ মা আমার মা ”পাওয়া যাবে।               কুয়েত প্রবাসী ঃ কবি সমীর চন্দ্র দাস, একক প্রকাশিত কবিতার বই দু‘টি।

About

আরও পড়ুন...

শিক্ষায় শিক্ষকের অনুপ্রেরণায় ভাগ্য পরিবর্তন হয়

জীবন কর্ম ব্যস্ততায় হাজারও মানুষ যেন হারিয়ে ফেলছে অতীতের বিশেষ কিছু স্মৃতি আর যেন নেতিবাচক …

error: Content is protected !!