Home / কুয়েত / কুয়েতে জাতীয় পার্টির ২৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

কুয়েতে জাতীয় পার্টির ২৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

বক্তব্যে জাতীয় পার্টি কুয়েত শাখার সভাপতি মোহাম্মদ আলী হাজী
মঈন উদ্দিন সরকার সুমন কুয়েত থেকেঃ ১লা জানুয়ারী জাতীয় পার্টির ২৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জাতীয় পার্টি কুয়েত শাখার নেতৃবৃন্দ। বুধবার সন্ধ্যায় কুয়েত সিটির গুলশান হোটেলে কেক কাটার মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু হয়। জাতীয় পার্টি কুয়েত শাখার সভাপতি মোহাম্মদ আলী হাজীর সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী মল্লিক এর সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে কুয়েত প্রবাসী বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জাতীয় পার্টি কুয়েত শাখার সিনিয়ার সহ সভাপতি লুৎফর রহমান (লুদাই মিয়া), সহ সভাপতির সৈয়দ মহিদুর রহমান (সুন্দর আলী), নাসির উদ্দিন, ফারুক আহমেদ, আব্দুল খালেক, ইউসুফ, সামি আবুল, রমিজ ভান্ডারী, কাদের মোল্লা. হাজী জুবের আহমেদ, জাফর আহমদ চৌধুরী সহ আরো অনেক বক্তা বক্তব্যে বলেন বাংলার মানুষের বর্তমান এই অবস্থার অবসান একমাত্র সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ দিতে পারবে যা অন্য কারো ধারা সম্ভব নয়। বর্তমান পরিপ্রেক্ষিতে দেশ বিদেশে দুর্বার আন্দলোন গড়ে তুলে, প্রিয় মাতৃভূমি ও মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসতে এরশাদের হাতকে শক্তীসালি করতে সবার প্রতি আহবান জানান। মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে সমাপ্তি ঘটে।

About

আরও পড়ুন...

কুয়েতে তরুন সফল উদ্যোক্তা

কুয়েতে সাধারণ এক গাড়িচালক হিসেবে প্রবাস জীবন শুরু। সেই থেকে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ধীরে ধীরে সফল ব্যবসায়ীতে পরিণত হয়েছেন । বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ থেকে নিত্যব্যবহার্য পণ্য আমদানি করে এরই মধ্যে দেশটিতে বিশাল বাজার তৈরি করে ফেলেছেন তরুণ এই প্রবাসী।শরীফ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।।  মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম (৩৮)। বন্ধুরা তাঁকে সম্মান করে মুফতি নামে ডাকেন। গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার বেকুটিয়া গ্রামে। শহিদুল ইসলামের বাবা মুহাম্মদ সুলতান আলী পেশায় একজন কৃষক। বাংলাদেশে থাকার সময় শহিদুল ইসলাম রাজধানীর মিরপুরের মাদ্রাসা দারুল উলুম থেকে দাওরায়ে হাদিস বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং সর্বোচ্চ ডিগ্রি মুফতি উপাধি অর্জন করেন। এরপর কিছুদিন দেশে একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতাও করেন তিনি। শহিদুল ইসলাম জানান, ২০০৫ সালে কুয়েতে এসে কুয়েতি  নাগরিকের ওখানে গাড়িচালক হিসেবে তিনি দুই বছর কাজ করেন। সে কাজের সূত্রে কুয়েতের বিভিন্ন স্থান ও বাজার সম্পর্কে পরিচিত হন তিনি। পরে গাড়ি চালানো বাদ দিয়ে তিনি কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে বিক্রয়কর্মীর চাকরি  করেন।  পাশাপাশি ছোট খাট …

error: Content is protected !!