Home / কুয়েত / কুয়েতে বাংলাদেশি তরুনদের সেচ্ছায় রক্তদান

কুয়েতে বাংলাদেশি তরুনদের সেচ্ছায় রক্তদান

কুয়েত সংবাদদাতা: চেহারা বা গায়ের রং দিয়ে নয় বিদেশে কাজের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হয় বিভিন্ন দেশের প্রবাসীদের তাই বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের মান উজ্জ্বল করতে কুয়েতে বাংলাদেশি তরুণরা সেচ্ছায় রক্তদান করে। ভারত,পাকিস্তান,মিসর সহ অন্যান্য দেশের নাগরিকরা সেচ্ছায় রক্তদান করতে দেখা যায়। কুয়েতে এই প্রথম বাংলাদেশি তরুণরা ১৬ ডিসেম্বর ৪৯ তম মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে কুয়েত প্রবাসী পেইজের উদ্যোগে শুক্রবার দুপুর ১ টা হতে ৬ টায় পর্যন্ত দেশটির জাবরিয়া কুয়েত সেন্ট্রাল ব্লাড ব্যাংকে সেচ্ছায় রক্তদান করে। শুক্রবার ছুটির দিন থাকায় আবার অনেকেই ডিউটি শেষে কুয়েতের বিভিন্ন অঞ্চল হতে ছুটে আসেন সেচ্ছায় রক্তদান করেন।

About বাংলার বার্তা

আরও পড়ুন...

কুয়েতে তরুন সফল উদ্যোক্তা

কুয়েতে সাধারণ এক গাড়িচালক হিসেবে প্রবাস জীবন শুরু। সেই থেকে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ধীরে ধীরে সফল ব্যবসায়ীতে পরিণত হয়েছেন । বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ থেকে নিত্যব্যবহার্য পণ্য আমদানি করে এরই মধ্যে দেশটিতে বিশাল বাজার তৈরি করে ফেলেছেন তরুণ এই প্রবাসী।শরীফ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।।  মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম (৩৮)। বন্ধুরা তাঁকে সম্মান করে মুফতি নামে ডাকেন। গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার বেকুটিয়া গ্রামে। শহিদুল ইসলামের বাবা মুহাম্মদ সুলতান আলী পেশায় একজন কৃষক। বাংলাদেশে থাকার সময় শহিদুল ইসলাম রাজধানীর মিরপুরের মাদ্রাসা দারুল উলুম থেকে দাওরায়ে হাদিস বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং সর্বোচ্চ ডিগ্রি মুফতি উপাধি অর্জন করেন। এরপর কিছুদিন দেশে একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতাও করেন তিনি। শহিদুল ইসলাম জানান, ২০০৫ সালে কুয়েতে এসে কুয়েতি  নাগরিকের ওখানে গাড়িচালক হিসেবে তিনি দুই বছর কাজ করেন। সে কাজের সূত্রে কুয়েতের বিভিন্ন স্থান ও বাজার সম্পর্কে পরিচিত হন তিনি। পরে গাড়ি চালানো বাদ দিয়ে তিনি কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে বিক্রয়কর্মীর চাকরি  করেন।  পাশাপাশি ছোট খাট …

error: Content is protected !!