Home / বিনোদন / কুয়েতে বাংলাদেশের আয়োজনে বিভিন্ন দেশের ২৮টি দলের অংশগ্রহনে এশিয়ান ডেজার্ট লিগ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

কুয়েতে বাংলাদেশের আয়োজনে বিভিন্ন দেশের ২৮টি দলের অংশগ্রহনে এশিয়ান ডেজার্ট লিগ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

এই প্রথম কুয়েতে প্রবাসী বাংলাদেশীরা এশিয়ান ডেজার্ট লিগ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০২১ এর আয়োজন করে। এই টুর্নামেন্টে বাংলদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা এবং আফগানিস্তান সহ বিভিন্ন দেশের ২৮টি দল অংশগ্রহণ করে। প্রচন্ড গরম উপেক্ষা করেই  আনন্দের সাথে যেমন  খেলেছেন বিভিন্ন দেশের খেলোয়াড়রা তেমনি ক্রিকেট প্রেমী দর্শকরাও খোলা আকাশের নিচে গ্রাউন্ডের পাশে গাছের নিচে কেউ বা মাঠের পাশে রাখা গাড়ির ছায়ায় কখনো দাঁড়িয়ে কখনো বসে খেলার আনন্দ উপভোগ করে।

কুয়েত প্রবাসী বাংলাদেশীরা বিভিন্ন সময়ে অন্য দেশের আয়োজনে খেলা অংশগ্রহণ করে আসছিল । এই প্রথম সকল দেশের জন্য উন্মুক্ত ভাবে এশিয়ান ডেজার্ট লিগ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করে বিদেশি খেলোয়াড়দের মাঝে সারা জাগিয়েছে  বাংলাদেশ। বাংলাদেশ ক্রিকেট এসোসিয়েশন কুয়েতে এর আয়োজনে এই টুর্নামেন্টের  প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিজেরাই মরু প্রান্তর কে গ্রাউন্ডে পরিণত করেছেন । কুয়েতে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ঘেঁষা আব্বাসিয়ায় দশটি মাঠ তৈরি করে এমন দৃষ্টান্ত স্থাপন করে  টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী বিদেশী খেলোয়াড়দের মাঝেও প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

শুক্রবার শেষ হলো টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল। ক্রিকেট  এসোসিয়েশনের ৩০ জন প্রবাসী বাংলাদেশী  আম্পায়ার সম্পূর্ণ খেলার সাফল্যের সাথে  দায়িত্ব পালন করছেন। বিদেশের মাটিতে বিভিন্ন দেশের খেলোয়াড়দের মাঝে আম্পায়ার দায়িত্ব   এটা  নতুন অভিজ্ঞতা । আম্পায়ারের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করে বিদেশিদের কাছে বাংলাদেশের সুনাম ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন আম্পায়াররা।

খেলার আয়োজকরা বলেন এটা কুয়েতে প্রবাসী বাংলাদেশী ক্রিকেট প্রেমিদের জন একটা চ্যালেঞ্জ ছিলো । সবার সহযোগিতা এই প্রথম এশিয়ান লিগের ম্যাচটি বাংলাদেশ ক্রিকেট এসোসিয়েশন আয়োজন করেছে। আয়োজকরা চেষ্টা করছে বাংলাদেশের সম্মান প্রবাসেও বিদেশিদের কাছে ধরে রাখতে । তাঁরা তাদের সাধ্য অনুযায়ী চেষ্টা করেছেন খেলার পরিচালনা আন্তর্জাতিক মানের পরিচালনা করতে।
আয়োজক: মোয়াজ্জেম হোসেন- সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ ক্রিকেট এসোসিয়েশন কুয়েতে 

৬ আগস্ট শুক্রবার খেলার সেমিফাইনালে আব্বাসিয়া ক্রিকেট গ্রাউন্ডে  নিউজ টুয়েন্টি ফোরের ক্যামেরায় উঠে আসে প্রচন্ড গরম উপেক্ষা করে খেলোয়াড় ও দর্শকদের আনন্দঘন পরিবেশের দৃশ্য। বিদেশে খেলোয়াড়দের মুখে বাংলাদেশী আয়োজকদের প্রশংসা। এই ধারা অব্যাহত রাখলে একদিন সুদূর এই মরুভূমির   দেশ কুয়েত থেকে তৈরি হবে বাংলার কোন এক টাইগার। 

সেমিফাইনালে ইকুবার্ট এফএম রাইডার্স টসে জিতে প্রথমে  ব্যাটিং করে ২০ ওভারে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ২৬২ রান করে। বিপরীতে ফ্রেন্ডস ক্রিকেট ক্লাব অল উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান করে পরাজিত হয় । ইকুবার্ট এফএম রাইডার্স ৯৭ রানে জয়ী হয়। খেলায় ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন মোহাম্মদ মাজেন আলী।

About বাংলার বার্তা

আরও পড়ুন...

কুয়েত গ্রিন ক্রিসেন্ট সোসাইটির আলোচনা ও সংবর্ধনা।

বাংলাদেশ গ্রীন ক্রিসেন্ট সোসাইটি কুয়েত’র উদ্যোগে আলোচনা ও সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার কুয়েত সিটির রাজধানী …