Home / দেশ / গালফ এয়ারের ফ্লাইটে ঢাকার যাত্রী ম্যাঙ্গালোরে!

গালফ এয়ারের ফ্লাইটে ঢাকার যাত্রী ম্যাঙ্গালোরে!

_

ভুল বাসে বা ট্রেনে চেপে ভুল গন্তব্যে যাওয়ার ঘটনা অহরহই ঘটে। কিন্তু ভুল বিমানে চেপে ভুল গন্তব্যে যাওয়ার ঘটনা বিরল। বিরল সেই ঘটনা ঘটালেন এক বাংলাদেশি। বাহরাইন থেকে দেশে ফিরছিলেন তিনি সন্তানের মৃত্যু খবর পেয়ে। কিন্তু ঢাকায় নয় তার বিমানটি গিয়ে পৌঁছে ভারতের ম্যাঙ্গালোরে বাজপে বিমানবন্দরে। মোহাম্মদ আলম মমতাজ উদ্দিন নামের এই বাংলাদেশির ওঠার কথা ছিলো গালফ এয়ারের ফ্লাইটে। কিন্তু ভুল করে চেপে বসেন এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের একটি ফ্লাইটে। বিমানটি গত ২৫ মে সকাল ৬টা ৩০ মিনিটে বাজপে বিমানবন্দরে নামার আগেই অবশ্য পুত্রশোকে কাতর মমতাজউদ্দিন নিজের ভুল বুঝতে পারেন। ঢাকায় আসার জন্য শত আকুতি থাকলেও ভারতীয় ইমিগ্রেশনের কর্মীরা তাকে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের পরের ফ্লাইটে পাঠিয়ে দেন দুবাই। ইমিগ্রেশনের কর্তা ব্যক্তিরাতো এ ঘটনায় রিতিমতো হতভম্ব। তাদেরই একজনকে উদ্ধৃত করে টাইমস অব ইন্ডিয়া শুক্রবার এ খবর জানায়। ওই ইমিগ্রেশন অফিসার বলেন, এর আগে ভূয়া পাসপোর্ট, অবৈধ ভিসা এসব কারণে অনেককেই আটক করা হয়েছে কিংবা ফেরত পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এমন ঘটনা এটাই প্রথম। একেক জন বিমান যাত্রীকে বেশ কয়েকটি পর্যায়ে চেক করা হয়, সবকটি চেকপোস্ট এড়িয়ে কিভাবে এই যাত্রী ভুল বিমানে চেপে ম্যাঙ্গালোরে পৌঁছালেন তা বিষ্ময়ের। তিনি বলেন, এই ব্যক্তি ভারতীয় হলে তাকে আটক করা যেতো কিন্তু তিনি যেহেতু একজন বিদেশি আমরা নিয়ম অনুযায়ী তাকে দ্রুত ফিরতি প্লেনে তুলে দিয়েছি। ঘটনায় বিষ্মিত ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষও। বেশ কয়েকটি পর্যায়ে চেক করার পরও এমন ঘটনাকে এয়ারলাইন্সটির বড় ধরনের ব্যর্থতা হিসেবেই দেখা হচ্ছে। মমতাজউদ্দিনের ক্ষেত্রে প্রথম ভুলটি হয় যখন তিনি বাহরাইন-ম্যাঙ্গালোর বোর্ডিং কার্ড সগ্রহ করেন। সন্তানের মৃত্যুর খবরই হয়তো তাকে আনমনা করে রাখে, যা অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু এর পর বিমানে উঠে অন্যান্য যাত্রীদের দেখে, কিংবা বিমানের ভেতরের অবস্থা দেখেও তার মনে সন্দেহ হয়নি। এয়ার হোস্টেসকে দোষ দিতে নারাজ এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ। কারণ যাত্রীর হতে বাহরাইন-ম্যাঙ্গালোরের বোর্ডিং পাস ছিলো। শেষ পর্যন্ত বিমানটি বাজপে বিমানবন্দরে অবতরনের ঠিক আধাঘণ্টা আগে বিষয়টি ধরা পড়ে। ফ্লাইাট কমান্ডার দ্রুত বিষয়টি জানিয়ে দেন মুম্বাই এয়ার ইন্ডিয়া কার্যালয়ে। তখনই মমতাজউদ্দিন জানান তিনি সন্তানের মৃত্যু খবর পেয়ে দেশে ফিরছিলেন। পরে বাজপে বিমানবন্দরে অবতরনের পর মমতাজউদ্দিনকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় ফিরতি ফ্লাইটে দুবাইয়ে। সেখান থেকে তার ঢাকা পৌঁছার জন্যও টিকিট খরচ বহন করে এয়ার ইন্ডিয়া। সন্তানহারা দিকভ্রান্ত পিতার জন্য এটি একটি মানবিক বিবেচনা। কিন্তু গোটা বিষয়টিকে মোটেই ছোট করে দেখছে না এয়ার ইন্ডিয়া।

About

আরও পড়ুন...

আজ মহান মে দিবস

আজ মহান মে দিবস। বিশ্বের শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের দিন। ১৮৮৬ সালের এই দিনে মার্কিন …

error: Content is protected !!