Home / দেশ / সারাদেশ / গাড়িতে টিসিবি পন্য বিক্রি বন্ধ বাজারে প্রভাব পরেনি ঝালকাঠিতে ডিলারদের টালবাহানা মনিটরিংয়ের দ্বায়িত্ব নিয়ে জেলা প্রশাসন ও খাদ্য বিভাগের ঠেলাঠেলি

গাড়িতে টিসিবি পন্য বিক্রি বন্ধ বাজারে প্রভাব পরেনি ঝালকাঠিতে ডিলারদের টালবাহানা মনিটরিংয়ের দ্বায়িত্ব নিয়ে জেলা প্রশাসন ও খাদ্য বিভাগের ঠেলাঠেলি

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ঃ আসন্ন রমজান উপলক্ষ্যে দ্রব্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকার টিসিবির মাধ্যমে নিত্য পন্য বিক্রির উদ্যোগ নেয়। ভ্রাম্যমান গাড়িতে ও ডিলারদের দোকানে দুভাবে পন্য সামগ্রী বিক্রির নিয়ম থাকলেও তা মানছেনা ঝালকাঠির ডিলাররা। এসব অনিয়ম মনিটরিংয়ের কোন ব্যবস্থা না থাকায় জনসাধারন স্বল্পমূল্যে এসব পন্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ডিলাররা মিথ্যা ও প্রতারনার আশ্রয় নিয়ে প্রকাশ্যে বিভিন্ন অজুহাতে এসব মালামাল ক্রয়ে ক্রেতাদের নিরুৎসাহিত করছে।
ঝালকাঠির ৪ উপজেলায় এবার ১৫ জনের মধ্যে মাত্র ২ জন ডিলার টিসিবির মালামাল বিক্রি করছে। অপর ডিলাররা কেন বিক্রি করছেনা, ভ্রাম্যমান গাড়িতে মালামাল বিক্রি বন্ধ কাদের স্বার্থে, এসব মালামালের ”দাম বেশি মান ভাল না” বলে ডিলাররা কেন ক্রেতাদের নিরুৎসাহিত করছে তা দেখার কেউ নেই। অথচ ডিলারদের সামনেই ক্রেতারা বলছে মান ভালো। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ এব্যাপারে প্রচারনা তেমন না হওয়ায় অনেকেই জানেনা। ভ্রাম্যমান গাড়িতে মালামাল বিক্রি করতে অতিরিক্তি ভাড়ার যুক্তি দেখিয়ে তা বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রতি সপ্তাহে ৫ দিন গাড়িতে এবং ৬ দিন দোকানে মালামাল বিক্রি করার কথা। এব্যাপারে ঝালকাঠি তামাক পট্টির টিসিবি ডিলার মনোজ স্টোরের মালিক রতন সমদ্দার জানান, জেলা প্রশাসন আমাদের এ বিষয়ে মনিটরিং করছে। এবার আমরা মাত্র দু জন ডিলার গাড়িতে বিক্রির জন্য বরাদ্দ মালামাল এখন দোকানে বিক্রি করছি।দোকানের বরাদ্দ মালামাল উত্তোলন করিনি। কারন প্রতিদিন গাড়ি ভাড়া বাবদ খরচ হয় ৩ হাজার টাকা। আমরা ১৬শ কেজি মাল বিক্রি করলে পাই ১৬শ টাকা। কিন্তু মাল বিক্রি হয় ৬শ কেজি। বাকি টাকা আমরা পোশাতে না পেরে গাড়ির মাল দোকানে বিক্রি করছি। দোকানের মাল উত্তোলন করছি না। শহরের আড়ৎদ্দার পট্টির অপর ডিলার সুমন জানান, টিসিবির সয়াবিন তেল, মসুর ডাল,ছোলা বুট ও চিনি বাজার দরের চেয়ে সামন্য কম এবং মান খারাপ হওয়ায় ক্রেতারা এগুলো কিনতে বেশি একটা আগ্রহী হচ্ছে না। টিসিবির মালামাল বিক্রির বিষয়টি পর্যবেক্ষনের দ্বায়িত্ব নিয়ে জেলা প্রশাসন ও খাদ্য বিভাগ একে অপরের উপর দায় চাপাচ্ছেন। এ ব্যাপারে ঝালকাঠি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) একেএম সোহেল বলেন, টিসিবির মালামাল বিক্রির মনিটরিংয়ের দায়িত্ব খাদ্য বিভাগের। এ বিষয়ে তিনি তাদের সাথে কথা বলার পরামর্শ দেন। অপরদিকে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্যালয়ের উপ-খাদ্য পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন বলেন, টিসিবি মনিটরিং এর দ্বায়িত্ব আমাদের নয়, জেলা প্রশাসনের।

About

আরও পড়ুন...

বেনাপোলে কেজি দরে তরমুজ বিক্রি, ক্রেতাদের ক্ষোভ

মো. রাসেল ইসলাম,শার্শা উপজেলা প্রতিনিধি: যশোরের বেনাপোলে মাহে রমজান ও তাপদাহকে কাজে লাগিয়ে তরমুজ ব্যবসায়ীরা …

error: বাংলার বার্তা থেকে আপনাকে এই পৃষ্ঠাটির অনুলিপি করার অনুমতি দেওয়া হয়নি, ধন্যবাদ