Home / দেশ / সারাদেশ / নবীনগরে ৪১ বছর পর গণ-কবর সন্ধান-

নবীনগরে ৪১ বছর পর গণ-কবর সন্ধান-

জালাল উদ্দিন মনির; নবীনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ৪/৪/২০১২ইং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ইব্রাহিমপুর বিলে মাটি কাটার সময় স্বাধীনতার ৪১ বছর পর আরও একটি গণ-কবরের সন্ধান পাওয়া গেছে । ওই �হান থেকে মানুষের মাথার খুলি সহ শরীরের বিভিন্ন অংঙ্গের হাঁড় উদ্ধার করা হয়েছে ।
জানাযায়, ইব্রাহিমপুর গ্রামের মনু সুবেদারের বিলের ডোবা থেকে মেশিনে মাটি কাটার সময় শ্রমিকরা প্রথম দিন দু-একটি মাথার খুলি পেয়ে �হানীয় কবরে মাটি চাপা দিয়ে দেয় । গতকাল বুধবার ওই গর্তে মাটি কাটার সময় আবারও ১০থেকে ১২টি মাথার খুলি ও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের হাঁড় পাওয়ার বিষয়টি ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ওমর ফারুকের কাছ থেকে জানতে পেরে উপজেলা কৃষিকর্মকর্তা শহিদুল হক ও দৈনিক আমার দেশ নবীনগর উপজেলা প্রতিনিধি জালালউদ্দিন মনির ঘটনা�হলে উপ�িহত হয়ে এর সত্যতা পান ।
এ বিষয়ে ওই গ্রামের আবু তাহের খন্দকার(৭৮) বলেন, সংগ্রামের সময় হাত-পা বাঁধা অব�হায় ওইখানে অনেক লাশ দেখেছি । লাশ গুলো পচে গিয়েছিল সে কারনে লাশের নাম বলতে পারবনা ।
খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার , ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ঘটনা �হলে উপ�িহত হন ।
ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নোমান চৌধুরী বলেন, আমি নিজেও দেখেছি এইখানে লাশ ভাসতে, যুদ্ধের সময় ইব্রাহিমপুর গ্রামে পাক বাহিনী আগুনে জ্বালিয়ে দিয়েছিল । ওই সময় গ্রামে তেমন লোকজন বাস করত না ।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার আলম সরকার বলেন, আমরা জানতে পেরেছি এই বিলে অনেক মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা করা হয়েছিল ।
স্বাধীনতার ৪১ বছর পর উদ্ধার হওয়া মাথার খুলি ও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের হাঁড় গুলি ইব্রাহিমপুর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মোনায়েম চৌধুরীর কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয় । ওই জায়াটি গণ-কবর হিসেবে চিহ্নিত করার জন্য সরকারের কাছে দাবী জানিয়েছেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড।

About

আরও পড়ুন...

বেনাপোল বন্দরে প্রতারক আটক

বেনাপোল প্রতিনিধি: বেনাপোলে সিএন্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশন এর একটি ভূয়া কার্ডসহ সাদিপুর গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে …

error: Content is protected !!