Home / দেশ / সারাদেশ / নবীনগরে ৪১ বছর পর গণ-কবর সন্ধান-

নবীনগরে ৪১ বছর পর গণ-কবর সন্ধান-

জালাল উদ্দিন মনির; নবীনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ৪/৪/২০১২ইং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ইব্রাহিমপুর বিলে মাটি কাটার সময় স্বাধীনতার ৪১ বছর পর আরও একটি গণ-কবরের সন্ধান পাওয়া গেছে । ওই �হান থেকে মানুষের মাথার খুলি সহ শরীরের বিভিন্ন অংঙ্গের হাঁড় উদ্ধার করা হয়েছে ।
জানাযায়, ইব্রাহিমপুর গ্রামের মনু সুবেদারের বিলের ডোবা থেকে মেশিনে মাটি কাটার সময় শ্রমিকরা প্রথম দিন দু-একটি মাথার খুলি পেয়ে �হানীয় কবরে মাটি চাপা দিয়ে দেয় । গতকাল বুধবার ওই গর্তে মাটি কাটার সময় আবারও ১০থেকে ১২টি মাথার খুলি ও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের হাঁড় পাওয়ার বিষয়টি ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ওমর ফারুকের কাছ থেকে জানতে পেরে উপজেলা কৃষিকর্মকর্তা শহিদুল হক ও দৈনিক আমার দেশ নবীনগর উপজেলা প্রতিনিধি জালালউদ্দিন মনির ঘটনা�হলে উপ�িহত হয়ে এর সত্যতা পান ।
এ বিষয়ে ওই গ্রামের আবু তাহের খন্দকার(৭৮) বলেন, সংগ্রামের সময় হাত-পা বাঁধা অব�হায় ওইখানে অনেক লাশ দেখেছি । লাশ গুলো পচে গিয়েছিল সে কারনে লাশের নাম বলতে পারবনা ।
খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার , ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ঘটনা �হলে উপ�িহত হন ।
ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নোমান চৌধুরী বলেন, আমি নিজেও দেখেছি এইখানে লাশ ভাসতে, যুদ্ধের সময় ইব্রাহিমপুর গ্রামে পাক বাহিনী আগুনে জ্বালিয়ে দিয়েছিল । ওই সময় গ্রামে তেমন লোকজন বাস করত না ।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার আলম সরকার বলেন, আমরা জানতে পেরেছি এই বিলে অনেক মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা করা হয়েছিল ।
স্বাধীনতার ৪১ বছর পর উদ্ধার হওয়া মাথার খুলি ও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের হাঁড় গুলি ইব্রাহিমপুর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মোনায়েম চৌধুরীর কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয় । ওই জায়াটি গণ-কবর হিসেবে চিহ্নিত করার জন্য সরকারের কাছে দাবী জানিয়েছেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড।

About

আরও পড়ুন...

সোনালী লাইফের আইপিও বিনিয়োগকারীরা ন্যুনতম পাবেন ১৭ শেয়ার

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্তির প্রক্রিয়াধীন সোনালী লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের প্রো-রাটা (pro-rata) ভিত্তিতে …