Home / দেশ / সারাদেশ / ব্রাহ্মণবাড়িয়া / নিয়তি তাকে ভোগ করতে দিলেন না

নিয়তি তাকে ভোগ করতে দিলেন না

কসবা (ব্্রাহ্মণবাড়িয়া)ঃ প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার সুফল ভোগ করতে পারলেন না হতভাগ্য প্রধান শিক্ষক মনির হোসেন (৪৩)। নিয়তি তাকে নিয়ে গেছে অজানা দেশে। যেখান থেকে কেউ আর ফিরে আসে না।
মনির হোসেন কসবা পৌর এলাকার নোয়াপাড়া রেজিস্টার্ড বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। গত বুধবার (৯ জানুয়ারি) ঢাকার প্যারেড স্কয়ারে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক মহাসমাবেশে গিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা শুনে আবেগে আপ্লুত মনির কসবা উপজেলার সকল সহকর্মীদের সাথেই এলাকায় ফিরে আসেন। গতকাল (১০ জানুয়ারি) ভোরে হৃদপিন্ডের ক্রিয়া বন্ধ হলে তাঁকে দ্রুত কসবা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
১৯৮৮ সালে তাঁর প্রথম কর্মজীবন শুরু হয় কসবার ঐতিহ্যমন্ডিত কিন্ডারগার্টেন স্কুল সিডিসি’তে। তারপর ১৯৯০ সালে সরকারী হবে এই আশায় বুক বেঁধে যোগ দেন নোয়াপাড়া রেজিস্টার্ড বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। স্বপ্ন দেখেন স্ত্রী, ছেলেকে নিয়ে। বিগত ২২ বছর যাবত মনির হোসেন নিরবিচ্ছিন্ন শিক্ষাসেবা দিয়ে আসছিলেন নোয়াপাড়া রেজিস্টার্ড বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। তাঁর অকাল মৃত্যুতে পুরো শিক্ষক সমাজে বেদনার ছায়া পড়েছে।
তাঁর এ অকাল মৃত্যুতে উপজেলা শিক্ষা অফিসার লিটন দাস বলেন; “এ মৃত্যুটি বড়ই বেদনার্ত। আমি তাঁর ছোট ছেলেটিকে দেখে স্থির থাকতে পারিনি। তাঁর ৮ বছরের এ সন্তানটি এতিম হয়ে গেল।”
এদিকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মনির হোসেনের অকাল মৃত্যুতে শিক্ষক নেতা মো: আসাদুজ্জামান ভূইয়া (ফুল মিয়া) ও মো: মমিনুল ইসলাম গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) তার গ্রামের বাড়ি উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের ধ্বজনগরে পারিবারিক গোরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়।

আরও পড়ুন...

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ড্রাগন ফল চাষ

ফল হলো নিষিক্ত ও পরিপক্ব ডিম্বাধার।  অন্য কথায় ফল বলতে আমরা অনেকেই বুঝি আম, জাম, …