Home / দেশ / পাবনায় ২ গৃহবধূর আত্বহত্যা ॥ স্বজনদের দাবী হত্যা।

পাবনায় ২ গৃহবধূর আত্বহত্যা ॥ স্বজনদের দাবী হত্যা।

মোবারক বিশ্বাস ঃ পাবনায় পৃথক ঘটনায় দুই গৃহবধূ আত্বহত্যা করেছে বলে প্রাথমিক তথ্যে জানা গেছে। এদিকে নিহতদের স্বজনরা বলেছে তাদেরকে হত্যা করে আত্বহত্যা বলে প্রচার করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, পাবনা সদর উপজেলার মাদারবাড়িয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামে বৃহস্পতিবার সকালে কেয়া (২০) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পাবনা থানা পুলিশ। স্থানীয়দের তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ সকাল ৮ টায় কেয়ার লাশ মাদার বাড়িয়া শশুর বাড়ির উঠান থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। নিহতের গলায় কালো দাগ ছিল। পরবর্তিতে লাশের ময়না তদন্তের জন্য পুলিশ পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেছে। নিহত কেয়া উক্ত এলাকার আব্দুল হামিদের ছেলে মিলন ওরফে কালুর স্ত্রী। নিহতের বাবা আলতাব কাজী পাবনা থানায় অভিযোগ করেন, কেয়ার স্বামী, শশুর, শাশুড়ি যৌতুকের জন্য প্রায়ই মারপিট করতো। এনিয়ে মাদারবাড়িয়া গ্রামে কয়েকবার শালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ঘটনার দিন বুধবার সন্ধায় কেয়াকে স্বামী কালু মারপিট করে। এ ছাড়া শশুড় ও শাশুড়ি এই বলে গাল মন্দ করে “কত মানুষ আত্বহত্যা করে তুই করতে পারিস না।” এ ঘটনা কেয়া তার বাবাকে মোবাইলে অবহিত করে। সকালে স্থানীয়দের মাধ্যমে কেয়ার বাবা আলতাব কাজী জানতে পারে তার মেয়ে আত্বহত্যা করেছে। ঘটনার পর থেকে স্বামী, শশুড়, শাশুড়িসহ বাড়ির সকল সদস্য পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে পাবনা থানায় কেয়ার বাবা আলতাব কাজী বাদী হয়ে ৬ জনের নাম উল্ল্যেখ করে একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং-৫৯, তাং-৩১-০৫-১২ইং। এদিকে পৃথক ঘটনায় আতাইকুলা থানা এলাকায় আরেক গৃহবধূ আত্বহত্যা করেছে। তবে নিহতের বাবা ছোহরাবের দাবী তার মেয়েকে হত্যা করে আত্বহত্যা বলে প্রচারনা করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে খবর পেয়ে সাঁথিয়া উপজেলার আর-আতাইকুলা ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রাম থেকে ময়না খাতুনের লাশ উদ্ধার করেছে আতাইকুলা থানা পুলিশ। স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে আতাইকুলা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেছে। নিহত ময়না খাতুন (২৫) চরপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের স্ত্রী। ্িনহতের বাবা ছোহরাব আতাইকুলা থানায় অভিযোগ করেন তার মেয়ে ময়নাকে হত্যা করে লাশ ফেলে স্বামী রহমান ও তার পরিবার পালিয়েছে। নিহত ময়নার ২ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। এ ব্যাপারে আতাইকুলা থানায় মামালা হয়েছে। মামলা নং-১১, তাং-৩১-০৫-১২। উভয় ঘটনায় পুলিশ লাশ মাটিতে শোয়া অবস্থায় উদ্ধার করেছে। তবে নিহত ২ জনের গলায় কালো দাগ রয়েছে।

About

আরও পড়ুন...

চট্টগ্রামে ক্যাব’র উদ্যোগে জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার সাথে অ্যাডভোকেসী সভা অনুষ্ঠিত

চট্টগ্রামে ক্যাব’র উদ্যোগে জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার সাথে অ্যাডভোকেসী সভা অনুষ্ঠিত। ভোক্তাদের মাঝে শিক্ষা ও …

error: Content is protected !!