Home / দেশ / বাঙ্গালী নদীতে ১৫ বছর পর আবারো নৌকা দিয়ে পারাপার।

বাঙ্গালী নদীতে ১৫ বছর পর আবারো নৌকা দিয়ে পারাপার।

নজরুল ইসলাম মিন্টু বগুড়া জেলা প্রতিনিধি ঃ সারিয়াকান্দিতে আবারো নৌকা যোগে বাঙ্গালী নদী পারাপার হতে হচ্ছে জনসাধারনকে। চরম  দূর্ভোগে পড়ে ফেরী চলাচলের দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী। গত মার্চ মাস থেকে  সারিয়াকান্দি বগুড়া সড়কে বাঙ্গালী নদীর উপর বেইলি ব্রীজ কে গার্ডার ব্রিজ  রপান্তরের কাজ চলছে । তখন থেকে বাঙ্গালী ব্রীজের উপর দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সারিয়াকান্দি সদর থেকে বগুড়ার জেলার সাথে যোগাযোগের জন্য যানবাহন চলাচলের উপযোগী করে শুষ্কো মৌসুমে তখন ব্রীজের দক্ষিণ পাশে  বিকল্প রাস্তা তৈরী করা হয়।বাঙ্গালী নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিকল্প রাস্তাটি এখন পানির নীচে। গত বুধবার থেকে  সেথানে বগুড়া সারিয়াকান্দি সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। তথন থেকে বাস, ট্রাক,সিএনজি সহ অন্যান্য যানবাহন চলাচল বন্ধ।যাত্রীবাহী যানবাহন চলছে নদীর পশ্চিম পাড় থেকে। ফলে সরকারী ,বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, কর্মচারী ,স্কুলগামী ছাত্রছাত্রী,শিক্ষক,ব্যবসায়ী সহ যাত্রীরা  নৌকা দিয়ে নদী পারাপার হচ্ছেন । জীবণের ঝুকি নিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে নৌকা দিয়ে পারাপার হতে হচ্ছে মানুষকে ।ধারণ ক্ষমতার বেশী যাত্রী নিয়ে গত বৃহস্পতিবার তিনটি নৌকা ডুবে যায়।নদীতে পানি কম থাকায় কোন প্রাণহানীর ঘটনা ঘটেনি। সেই ১৫ বছর আগে বাঙ্গালী নদী পারাপারের দৃশ্য আবার ফিরে এসেছে।নতুন করে দেখতে পাচ্ছে  বাঙ্গালী ব্রীজ নির্মানের পরে জন্ম নেওয়া বর্তমান প্রজন্ম।   বর্তমানে মালামাল পরিবহন করতে এখন চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। সারিয়াকান্দি-বগুড়া সড়কটি পূর্ব বগুড়ার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দিয়ে বগুড়া ছাড়াও জামালপুর ও শেরপুর জেলার  ব্যবসায়িরা  এই পথে বগুড়া শহর থেকে মালামাল পরিবহন করে থাকে। অনেক ব্যবসায়ী জোড়গাছা ব্রীজ হয়ে মালামাল পরিবহন করছে। ঘোরপথে পরিবহন  ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় ব্যবসায়িরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।বন্যার পানি যত বৃদ্ধি পাবে দুর্ভোগ আরো বাড়তে থাকবে। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ফেরী চালু করে  যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল করার দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী।

About

আরও পড়ুন...

ভ্যাকসিন প্রাপ্তির তালিকায় বিদেশগামী কর্মীরা

কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন প্রাপ্তির তালিকায় অগ্রাধিকার প্রাপ্ত বিদেশগামী কর্মীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। iপ্রবাসী কল্যাণ ও …

error: বাংলার বার্তা থেকে আপনাকে এই পৃষ্ঠাটির অনুলিপি করার অনুমতি দেওয়া হয়নি, ধন্যবাদ