Home / প্রযুক্তি / বিদেশ থেকে দেশে টাকা পাঠানোর নতুন উপায় ‘রেমিটটু হোম’

বিদেশ থেকে দেশে টাকা পাঠানোর নতুন উপায় ‘রেমিটটু হোম’

প্রতি বছর বহু বাংলাদেশী অভিবাসনের উদ্দেশে পাড়ি জমাচ্ছেন বিদেশে। বিপরীতে কষ্টার্জিত অর্থ দেশে পাঠানো তাদের জন্য হয়ে থাকে ব্যয়সাপেক্ষ একটি ব্যপার, একই সাথে ভোগ করেন নানান দুর্ভোগ। পূর্ব প্রচলিত গতানুগতিক পদ্ধতিতে দেশে টাকা পাঠাতে কাউকে যেতে হতো ব্যাংক কিংবা এজেন্টের কাছে। এই পদ্ধতিতে শুরুতে প্রথমে অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলতে হয়, তারপর টাকা ট্রান্সফার করার ইনস্ট্রাকশান দিয়ে কিছু কাগজপত্র পূরণ করতে হয়। অন্যদিকে যিনি টাকা গ্রহণ করবেন তাঁকে যেতে হয় দেশের নির্দিষ্ট কোন ব্যাংক বা এজেন্টের কাছে এবং তারপর প্রাপকের পরিচয় প্রমাণিত হওয়ার পর রেমিটেন্সের টাকা বুঝে পান। এ কথা বলাই বাহুল্য, পুরো প্রক্রিয়াটি বেশ কষ্টকর, সময়সাপেক্ষ এবং যেকোন ক্ষেত্রেই ত্রুটিপূর্ণ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
প্রযুক্তির আশীর্বাদে, দেশে টাকা পাঠানোর অভিনব সব উপায় বর্তমানে চালু হয়েছে। অন্যান্য আরো অনেক ক্ষেত্রের মত মানিট্রান্সফারের বিষয়টিও পা রেখেছে ডিজিটাল দুনিয়ায়। প্রচলিত রেমিটেন্স পদ্ধতির সাথে তুলনামূলক ভাবে অনলাইন মানিট্রান্সফারের গ্রহণ যোগ্যতা বাড়ছে খুব দ্রুত। নতুন এই পদ্ধতিতে দেশে রেমিটেন্স পাঠানোর সুবিধাও অনেক। যেমন, যিনি টাকা পাঠাচ্ছেন তাঁকে দিনের অর্ধেক সময় দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়না। শুধু তাই নয় অনলাইন রেমিটেন্সে শত শত কাগজপত্রপূরণ করে জমাদিতে হয় না। এ পদ্ধতিটি অনভিজ্ঞ লোকের কাছেও ভীষণ সহজ মনে হবে।
‘রেমিটটু হোম’এমনই একটি অভিনব ক্রস-বর্ডার অনলাইন মানিট্রান্সফার সার্ভিসের নাম।‘টাইমস্ অফ মানি’ এই অনলাইন মানিট্রান্সফার সার্ভিস দিয়ে আসছে বিগত ১২ বছর ধরে। গ্রাহক চাহিদার কথা মাথায় রেখে‘রেমিটটু হোম’ ব্র্যাক ব্যাংক এর সহযোগিতায় অনলাইনে বাংলাদেশে টাকাপাঠানোর সার্ভিস প্রদান করে সুবিাজনক ও নিরাপদ উপায়ে। ‘রেমিটটু হোম’এর সার্ভিস নিতে শুধুমাএ ওয়েবসাইটে গিয়ে একটি ফ্রি অ্যাকাউন্ট খুলতে হয় আর যিনি টাকা পাঠাচ্ছেন এবং যিনিটাকা পাবেন উভয়ের বিস্তারিত তথ্য যুক্ত করে দিলেই হয়।
ব্র্যাক ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও বলেন, “রেমিটেন্স আনয়নের ক্ষেত্রে ব্র্যাক ব্যাংক এ দেশের ৩য় বৃহত্তম প্রাইভেট ব্যাংক আর‘রেমিটটুহোম’এর মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সেবাদিতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমরাআশাকরছি‘রেমিট টু হোম’এর অত্যাধুনিক এই সেবার মাধ্যমে প্রবাসী বাংলাদেশীরা এখন আরো সহজের, ঝামেলাহীন ভাবে দেশে থাকা প্রিয়জনের কাছে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও দ্রুত টাকা পৌঁছে দিতে পারবেন। ”
ব্র্যাক ব্যাংক বর্তমানে বাংলাদেশের প্রায় ৫.৫% রেমিটেন্স আনয়ন করে। গত রাজস্ব বছরে ব্র্যাক ৬৩৭ মার্কিন ডলারের মতো গ্রহণ করেছে এবং দেশের বিস্তৃততমরেমিটেন্স নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ১.৪ মিলিয়ন রেমিটেন্স নিষ্পন্ন করেছে।
‘টাইমস অফ মানি’এর সিইও অভিজিত নন্দ বলেন, ‘বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার ২য় সবোর্চ্চ আভ্যন্তরীণ রেমিটেন্স গ্রহণকারী দেশ (সূত্র: ইফাদ)। বাংলাদেশের বর্ধমান অর্থনীতিতে নিরাপদ ও ঝামেলাবিহীন মানিট্রান্সফার সার্ভিসের মাধ্যমে অবদান রাখতে পেরে আমরা গর্ববোধ করি। এবার ঈদে আমরা সম্মানিত গ্রাহকদের সাথে আছি যেনো তাঁরা তাঁদের পরিবারের কাছে শুভেচ্ছা পাঠাতে পারবেন, বিশেষ উপহারের মাধ্যমে।’
‘রেমিটটু হোম’অনলাইন মানিট্রান্সফার সার্ভিস দেয় মুহূর্তেই যেকোন সময়ে টাকা পাঠিয়ে দেয়ার সুবিধা, গভীর রাতে কিংবা অফিসেবা বাড়ীতে বসেও। বাংলাদেশের যেকোন ব্যাংক সরাসরি এ টাকা পাঠিয়ে দেয়া যায়। অন্যদিকে প্রেরক যেকোন সময়ে ইমেল কিংবা কাস্টমার সার্ভিসের মাধ্যমে ট্রান্সফার ট্র্যাক করতে পারেন।

About

আরও পড়ুন...

স্মার্টফোনের স্পীড বাড়াবেন যেভাবে

স্মার্টফোন এখন সকলের কাছে গুরুত্বপূর্ণ এক ডিভাইস হয়ে উঠেছে। অনেক সময় দেখা যায় দরকারি কাজে …

error: Content is protected !!