Home / দেশ / মাদারীপুর জেলা বার্ষিক বনভোজন ও মিলনমেলার বণার্ঢ্য আয়োজনে অনুষ্ঠিত

মাদারীপুর জেলা বার্ষিক বনভোজন ও মিলনমেলার বণার্ঢ্য আয়োজনে অনুষ্ঠিত

তৈয়বুর রহমান টনি নিউ ইয়র্ক থেকে:-
যথারীতি প্রতিবছরের ন্যায় এবারও গত রোববার ২২ জুন হয়েগেল মাদারীপুর জেলা সমিতির ইউ.এস.এ বার্ষিক বনভোজন ও মিলন মেলা ২০১৩। নিউইয়র্ক, নিউজার্সির ও ভার্জেনিয়া বিভিন্ন স্থান থেকে পরিবার নিয়ে এসো জড়ো হয়ে নিউ ইয়কের্র উডসাইডে। রোজভেল্ট উডসাইড থেকে এ বিলাস বহুল দুইটি বাস ও ২০টা প্রাইভেটকারে প্রায় ২০০ শত লোক নিয়ে শত শত প্রবাসীর উপস্থিতিতে ক্রোটন পয়েন্ট পার্কে, ওয়েস্টাচেষ্টারে সকাল ১০;৩০ মিনিটে নিউ ইয়কের্র ৬১ ষ্ট্রীট রোজভেল্ট উডসাইড থেকে ছেড়ে যায় বিলাস বহুল বাস। প্রবাসে আঞ্চলিক সংগঠনের অন্যতম মাদারীপুর জেলা সমিতির ইউ.এস.এ বার্ষিক বনভোজন ও মিলন মেলার এক সুন্দর আনন্দঘন পরিবেশে অনুঠ্নিত হয়ে গেল। যাএা প্রক্লপে সকলকে নাস্তা দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়। সংগঠনের সকল আগত অতিথিদেরকে শুভেচ্ছা, অভিনন্দন জানান সংগঠনের সভাপতি আবুল হোসেন হাওলাদার ও সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান সরদার। বনভোজন কমিটির আহবায়ক মজিবর রহমান ও সদস্য সচীব , সংগঠনের সভাপতি আবুল হোসেন হাওলাদার ও সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান সরদার সকল অতিথি কে সাথে নিয়ে মেলা উদ্ধোধন করেন বিপুল করতালির মধ্যেমে। অতপরঃ শুভেচ্ছা বক্তব্য দিয়ে এবারের বনভোজন ও মিলনমেলার শুভ উদ্বোধন করেন। এরপর শুরু হয় বিভিন্ন ইভেন্টে সাজানো শিশু, কিশোর, মহিলা ও পুরুষদের জন্য খেলাধুলা। তারপরেই খেলাধুলার পর্ব শুরু হয়। পরিচালনা করেন আবুল হোসেন, ফরহাদ হোসেন ও গোলাম কুদ্দুস, শাফায়াত হোসেন ও লিয়াকত হোসেন। পিকনিক স্পোর্টে এক নতুন আয়োজন ছিল বারবিউকিউ আয়োজনে প্রতিটা ব্যক্তি উপোভগ করেছে, মধ্যাহৃভোজের আগ পর্যন্ত লম্বা লাইনে দাড়িয়ে থাকতে দেখাগেছে এর পুরটা অক্লান্ত পরিশ্রম করে সবার কাছে সন্দুর ভাবে পরিবেশন করেন মাদারীপুর জেলা সমিতির ইউ.এস.এ সাবেক সভাপতি মোস্পাফিজুর রহমান কবির।আকর্ষণীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ছিল ফুটবল খেলা, দৌড় বালক ১থেকে ৭বছরঃ ।১৮-১২ বালক দৌড় ১-৭ দৌড় বালিকা ১-৭ বিস্কুট দৌড় ৮-১২ বছরের বালিকা মার্বেল দৌড়।১৩-১৬ বালিকা মার্বেল দৌড়, সবচেয়ে আকর্ষণীয় মহিলাদের বালিশ খেলায় এতে প্রায় ৮০জন প্রতিযোগি অংশ গ্রহন করেন। ফুটবল খেলা সবুজ দল সাদা দলকে এক শূন্য গোলে পরাজিত করে জয়ী হয়। খেলা পরিচালনা করেন গোলাম কুদ্দুস মিয়া, নুরুজজাম্মান সরদার ও ফরহাদ হোসেন। মহিলাদের বালিশ খেলায় প্রথম হয়েছেন মাসুদা আকতার, দ্বিতয় হয়েছেন সালমা মাহমুদ, তৃত্বীয় ডেজী হোসেন। বালিশ খেলায় জার্জম্যান ছিলেন মাইনুল ইসলাম মানিক ও জালাল উদ্দিন জলিল। মধ্যাহৃভোজের সময় থেকে সাংস্কৃতিক চলা কালিন সময়ে একের পর এক বিশেষ অতিথিদের আগমনে বনভোজন যেন মহা মিলনমেলায় পরিণত হয়। মধ্যাহূভোজের রকমারি মজাদার খাবার পরিবেষন করা হয়। আয়োজনের শেষপ্রান্তে ছিল রাফেল ড্রঃ এর পরিচালনা করেন ফরহাদ হোসেন, গোলাম কুদ্দুস মিয়া, নাসির উদ্দিন আহমেদ, রাফেল ড্রঃ এর প্রথম পুরস্কার ৩২ ইঞ্চি টিভি, দ্বিতীয় ল্যাপটপ আইপড, তৃতীয় এয়ার কনডিসন, চতুর্থ, পঞ্চম, ষষ্ঠ ছিল ডিজিটাল ক্যামেরা ,গিফট সপ থেকে দেয়া পেয়েছেন যথাক্রমেঃ, সপ্তম মোবাইল, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, নবম মাইক্রোওয়েভ ওভেন, দশম টাওয়ার ফ্যান, একাদশ-তম ,স্ট্যান্ড ফ্যান, ত্রয়োদশ-তম ,ডিনার সেট, চতুর্দশ-তম ব্লেন্ডার মেশিন। রাফেল ড্রঃ এর ভাগ্যবান পরিবারটি ছিলেন শহীদুল্লহ সাঈদ দুটি রাফেল ড্রঃ এর বিজয় অর্জন করেন তৃত্বীয় ও ষষ্ট। রাফেল ড্রঃ পুরষ্কার

About

আরও পড়ুন...

করোনায় ৭৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪৬৩৬

রোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে আরও ৭৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট …

error: বাংলার বার্তা থেকে আপনাকে এই পৃষ্ঠাটির অনুলিপি করার অনুমতি দেওয়া হয়নি, ধন্যবাদ