Home / বিশ্ব / মাদ্রিদে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ডাক্তারদের ধর্মঘট

মাদ্রিদে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ডাক্তারদের ধর্মঘট

মাদ্রিদের প্রাণকেন্দ্র ‘পোয়ের্তা দেল সোল’- এ ডাক্তারদের সমাবেশ।সাহাদুল সুহেদ, স্পেন: স্পেনের মাদ্রিদে ডাক্তারদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন ‘এমাইট্স’ আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে মাদ্রিদে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট আহ্বান করেছে। ডাক্তার সঙ্কট, নিজেদের প্রয়োজনীয় ছুটি না পাওয়াসহ নানা অভিযোগ তোলে সেগুলোর সমাধান না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট চলবে বলে সংগঠনটি জানিয়েছে। ১২ সেপ্টেম্বর ধর্মঘট প্রসঙ্গ নিয়ে মাদ্রিদের প্রাণকেন্দ্র ‘পোয়ের্তা দেল সোল’- এ সমাবেশও করেছেন সংগঠনের সদস্যরা। করোনার ‘দ্বিতীয় তরঙ্গ’ এর আশঙ্কায় থাকা স্পেন সরকারও ডাক্তারদের ধর্মঘট নিয়ে চিন্তিত। ইতিমধ্যে মাদ্রিদ আঞ্চলিক সরকারের পক্ষ থেকে ডাক্তারদের ধর্মঘট যাতে শুরু হতে না পারে, সেজন্য সমঝোতা প্রস্তাব ও নানা কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। সূত্র, এল পাইস।
মাদ্রিদের ডাক্তারদের সংগঠন ‘এমাইট্স’ একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে যে করোনা পরিস্থিতিতে প্রতিদিন তাদেরকে শোচনীয় পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে পার করতে হচ্ছে এবং এর প্রেক্ষিতে রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা প্রদান ব্যাহত হচ্ছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় প্রথম সারির লড়াকু এ ডাক্তারদের একেকজনকে প্রতি শিফ্টে গড়ে ৮০জনের উপর রোগী দেখতে হচ্ছে ডাক্তার শঙ্কটের কারণে। মাদ্রিদে অন্তত আরো সাড়ে ৭শ’ ডাক্তার নিয়োগের দাবি করেছে সংগঠনটি।
স্পেনে করোনা পরিস্থিতি যখন খুব খারাপ ছিল, তখন ডাক্তাররা ছুটিহীন কাজ করে গেছেন। কিন্তু পরিস্থিতি যখন স্বাভাবিক হতে শুরু করে, তখন কিছু সংখ্যক ডাক্তার ছুটি পেলেও অধিকাংশ ডাক্তাররা ছুটি নিতে পারেননি। মাদ্রিদের রামন ই কাখাল স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের ডাক্তার ‘এল পাইস’ পত্রিকাকে জানান, স্পেনে লকডাউন যখন তুলে নেয়া হয়, তখন আমরা ভেবেছিলাম সম্ভবত একটি বিরতি পেতে পারি। তবে এটি ঘটেনি। এমুহূর্তে কয়েকজন ছুটিতে থাকায় আমাদের কর্মীদের সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে। এখন আবার করোনার প্রকোপ বাড়ায় একটানা কাজের চাপ বাড়তে শুরু করেছে।
মাদ্রিদ আঞ্চলিক সরকার প্রধান ইসাবেল দিয়াজ আইয়ুসো অবশ্য ডাক্তারদের সমস্যা সমাধানে তিন বছরের মধ্যে ৮০ মিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এ পরিকল্পনা কাজের অবস্থার উন্নতি করবে এবং কাজের চাপ কমাতে ক্রমান্বয়ে স্টাফ বাড়ানো হবে।
তবে ডাক্তারদের সংগঠন ‘এমাইট্স’ ইসাবেলের ঘোষণায় শীতল প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছে- ইসাবেলের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে অনেক দেরি হবে। পাশাপাশি কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় তরঙ্গ শুরু হওয়ার আশঙ্কাও জেগেছে। তখন রোগীর চাপ আরো বৃদ্ধি পাবে।

About admin

আরও পড়ুন...

যাঁরা ভ্যাকসিন গ্রহণ করেননি তাঁরা কুয়েতে প্রবেশ করতে পারবেন না

করোনা মহামারীর প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে কুয়েত সরকার । দেশটিতে অবস্থানরত সকল জনগণের সুরক্ষায় যুগোপযোগী …

error: বাংলার বার্তা থেকে আপনাকে এই পৃষ্ঠাটির অনুলিপি করার অনুমতি দেওয়া হয়নি, ধন্যবাদ