Home / শীর্ষ সংবাদ / ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন
ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন
ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন

স্টাফ রিপোর্টারঃ স্বাধীনতার মহান স্থপতি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের উদ্যোগে দিবসটির শুরুতেই জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন মমেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ চিত্ত রঞ্জন দেবনাথ। এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন উপধ্যাক্ষ প্রফেসর ডাঃ আখতারুন্নেছা, বিএমএ ময়মনসিংহ জেলার শাখার সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ মতিউর রহমান ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক এইচ.এ. গুলন্দাজ তারা সহ মমেক এর সকল চিকিৎসক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মমেক শাখার নেতৃবৃন্দ এবং কর্মরর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

About banglarbarta.com

আরও পড়ুন...

কুয়েতে তরুন সফল উদ্যোক্তা

কুয়েতে সাধারণ এক গাড়িচালক হিসেবে প্রবাস জীবন শুরু। সেই থেকে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ধীরে ধীরে সফল ব্যবসায়ীতে পরিণত হয়েছেন । বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ থেকে নিত্যব্যবহার্য পণ্য আমদানি করে এরই মধ্যে দেশটিতে বিশাল বাজার তৈরি করে ফেলেছেন তরুণ এই প্রবাসী।শরীফ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।।  মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম (৩৮)। বন্ধুরা তাঁকে সম্মান করে মুফতি নামে ডাকেন। গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার বেকুটিয়া গ্রামে। শহিদুল ইসলামের বাবা মুহাম্মদ সুলতান আলী পেশায় একজন কৃষক। বাংলাদেশে থাকার সময় শহিদুল ইসলাম রাজধানীর মিরপুরের মাদ্রাসা দারুল উলুম থেকে দাওরায়ে হাদিস বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং সর্বোচ্চ ডিগ্রি মুফতি উপাধি অর্জন করেন। এরপর কিছুদিন দেশে একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতাও করেন তিনি। শহিদুল ইসলাম জানান, ২০০৫ সালে কুয়েতে এসে কুয়েতি  নাগরিকের ওখানে গাড়িচালক হিসেবে তিনি দুই বছর কাজ করেন। সে কাজের সূত্রে কুয়েতের বিভিন্ন স্থান ও বাজার সম্পর্কে পরিচিত হন তিনি। পরে গাড়ি চালানো বাদ দিয়ে তিনি কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে বিক্রয়কর্মীর চাকরি  করেন।  পাশাপাশি ছোট খাট …

error: Content is protected !!