Home / শীর্ষ সংবাদ / শার্শা উপজেলা ও বেনাপোল পৌর ছাত্রলীগের উদ্যোগে অসহায় মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

শার্শা উপজেলা ও বেনাপোল পৌর ছাত্রলীগের উদ্যোগে অসহায় মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ

বেনাপোল প্রতিনিধি: পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে শার্শার সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিনের নির্দেশনায় ও যশোর জেলা ছাত্রলীগের নির্দেশে করোনার মহাসংকটে ২শ’ অসহায় দুঃস্থ-পথচারীদের মাঝে ইফতার ও মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৫টার সময় বেনাপোল আওয়ামীলীগের কার্যালয়ের সামনে ইজিবাইক চালক,ভ্যানচালক,বন্দর শ্রমিকদের মাঝে ইফতার ও মাস্ক বিতরণ করা হয়। ইফতার বিতরণ সময়ে উপস্থিত ছিলেন, শার্শা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ওহিদুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন, প্রচার সম্পাদক আজিজুল ইসলাম,সাংবাদিক আমিনুর রহমান, শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সর্দার,সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন রাসেল,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ মিলন,বেনাপোল পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মামুন জোয়াদ্দার,সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম,সাবেক ছাত্রনেতা আল ইমরানসহ উপজেলা ও বেনাপোল পৌর ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীরা।

About বাংলার বার্তা

আরও পড়ুন...

কুয়েতে তরুন সফল উদ্যোক্তা

কুয়েতে সাধারণ এক গাড়িচালক হিসেবে প্রবাস জীবন শুরু। সেই থেকে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ধীরে ধীরে সফল ব্যবসায়ীতে পরিণত হয়েছেন । বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ থেকে নিত্যব্যবহার্য পণ্য আমদানি করে এরই মধ্যে দেশটিতে বিশাল বাজার তৈরি করে ফেলেছেন তরুণ এই প্রবাসী।শরীফ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।।  মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম (৩৮)। বন্ধুরা তাঁকে সম্মান করে মুফতি নামে ডাকেন। গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার বেকুটিয়া গ্রামে। শহিদুল ইসলামের বাবা মুহাম্মদ সুলতান আলী পেশায় একজন কৃষক। বাংলাদেশে থাকার সময় শহিদুল ইসলাম রাজধানীর মিরপুরের মাদ্রাসা দারুল উলুম থেকে দাওরায়ে হাদিস বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং সর্বোচ্চ ডিগ্রি মুফতি উপাধি অর্জন করেন। এরপর কিছুদিন দেশে একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতাও করেন তিনি। শহিদুল ইসলাম জানান, ২০০৫ সালে কুয়েতে এসে কুয়েতি  নাগরিকের ওখানে গাড়িচালক হিসেবে তিনি দুই বছর কাজ করেন। সে কাজের সূত্রে কুয়েতের বিভিন্ন স্থান ও বাজার সম্পর্কে পরিচিত হন তিনি। পরে গাড়ি চালানো বাদ দিয়ে তিনি কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে বিক্রয়কর্মীর চাকরি  করেন।  পাশাপাশি ছোট খাট …

error: Content is protected !!