Home / বিশ্ব / হৃদয়ের বেদনা মুখে আনন্দের ঈদ কুয়েত প্রবাসীদের

হৃদয়ের বেদনা মুখে আনন্দের ঈদ কুয়েত প্রবাসীদের

রাত পোহালেই ঈদ, মঙ্গলবার কুয়েতে যথাযোগ্য মযার্দায় পালিত হবে ঈদুল আজহা। এবার ঈদুল আজহা কে কেন্দ্র করে নয় দিন সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। এই ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে কুয়েতের সুয়েখ, সেবদী, ফাহাহিল ও জাহারার পশুর হাটগুলোতে বেচাকেনা জমে উঠেছে।

কুরবানীর বাজারে গরু, খাসি, ঊট ও দুম্বা সহ বেচাকেনা হচ্ছে বিভিন্ন শ্রেণীর পশু। পছন্দসই পশুটি কিনতে পেরে স্থানীয় নাগরিক সহ প্রবাসীরা সকলেই খুশী।

প্রচন্ড গরম উপেক্ষা করেই ক্রেতারা ঘুরছেন এ বাজার থেকে সেই বাজার। করোনা মহামারীর প্রাদুর্ভাব আর প্রচন্ড গরমে খোলা আকাশের নিচে দেখা যায়নি এবারের কোরবানির পশু বাজার । কুয়েতে বিভিন্ন কুরবানীর পশুর হাট ঘুরে দেখা যায় স্বাস্থ্য বিধি মেনেই চলছে বেচা কেনা । করোনা মহামারির কারণে অনেকেই গত বছরের মত এবার ঈদে ইচ্ছা থাকলেও দেশে যেতে পারছেন না। তাই কেউ একা বা কয়েকটি পরিবার মিলে কুরবানী দিচ্ছেন কুয়েতে । কুয়েত প্রবাসী জাহিদুর রহমান স্বামী-স্ত্রী দুই জনের সংসার তিনি জানান ফ্যামিলি নিয়ে প্রতিবছরই দেশে যান ঈদ করতে কিন্তু করোনা মহামারীর প্রাদুর্ভাবের কারনে ফ্লাইট বন্ধ থাকার কারণে এবারও পরিবার নিয়ে কুয়েতে ঈদ করবেন । কুয়েতে সপরিবারে নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বসবাস করছেন আরেকজন শফিকুল ইসলাম তিনি জানান দুই বছর হতে চললো দেশে ঈদ করতে যেতে পারেন না ফ্লাইট বন্ধের কারণে। ব্যাদনায় ভরা মন নিয়ে এবার ঈদুল আজহা কুয়েতেই পালন করবেন। তিনি সহ তাঁরা পাঁচ পরিবার মিলে একটি গরু কিনেছেন কুরবানীর জন্য । তার মতে গরুর মূল্য গত বছরের চেয়ে অনেকটা কম। ব্যাচেলর প্রবাসী জীবন অতিবাহিত করছেন চঞ্চল চৌধুরী নামে পশু বাজারে আসা একজন প্রবাসী বললেন তার সহকর্মীরা মিলে একটি গরু কিনেছেন । যদি ফ্লাইট খোলা থাকত তাহলে হয়তো এখন দেশেই থাকতেন পরিবারের সাথে। এদিকে অনেক প্রবাসী বাংলাদেশি পরিবারের শিশু কিশোর দুম্বা এবং ছাগলের পালের মধ্য থেকে নিজেই পছন্দ করছেন কুরবানীর পশুটি। সন্তানদের আনন্দ দেখে নিজেও আনন্দিত অনেকে।

কুয়েত প্রবাসী সাংবাদকর্মী প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ কয়েকজন জানান তাঁরা এই প্রথম সবাই মিলে কুয়েতে কুরবানী দিতে একটি দুম্বা কিনেছেন তাঁরা বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে দেখেছেন। তারাও জানান গরুর তুলনায় দুম্বার মূল্য অনেক বেশী ।
এখানকার বাজারের অধিকাংশ পশু মিশর, তুর্কী অষ্ট্রেলিয়া, সাউদিআরব, ইয়েমেন সহ বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা। তাছাড়া স্থানীয়ভাবেও এখানে ফার্মে বিভিন্নজাতের পশু পালিত হয়। কুয়েত সরকারে নির্ধারিত স্থান ব্যতীত যত্রতত্র কুরবানী পশু জবাই করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ।

সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতে করোনা মহামারীর প্রাদুর্ভাব থেকে মুক্ত হয়ে আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবে এই পৃথিবীর মানুষ এই প্রত্যাশা সকলের ।

About বাংলার বার্তা

আরও পড়ুন...

কুয়েতে সুনাম বয়ে আনবে দক্ষ জনশক্তি নার্স

বাংলার বার্তাঃ মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনীদেশ কুয়েত, এখানে দক্ষ, আধা-দক্ষ, স্বল্প দক্ষ জনশক্তির রয়েছে অসংখ্য চাহিদা। …