Home / দেশ / বগুড়ায় মাইক্রোবাস সহ ৫ ডাকাত গ্রেফতার

বগুড়ায় মাইক্রোবাস সহ ৫ ডাকাত গ্রেফতার

নজরুল ইসলাম মিন্টু বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ ছিনতাই করার উদ্দেশ্যে দিনাজপুর থেকে মাইক্রোবাস ভাড়া করে এনে বগুড়ার সান্তাহারে মাইক্রোবাস চালক ও হেলপারকে বেঁধে রেখে মাইক্রো নিয়ে পালানো হল না পেশাদার ডাকাত দলের। বগুড়ার সান্তাহার টাউন পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ শহরের রেলস্টেশন ও খাড়িরপুল নামক স্থানসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে মাইক্রোবাস যাত্রীবেশী ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার এবং ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে ভাড়া করে আনা মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করেছে। পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে দিনাজপুর মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড থেকে ৭ জনের একদল ডাকাত যাত্রীবেশে (ঢাকা মেট্টো গ-১৪-৫০৯৪ নং) মাইক্রো ভাড়ায় নিয়ে সান্তাহারের উদ্দেশ্য রওনা হয়। মাইক্রোবাসটি রাত ১২টার দিকে সান্তাহার শহরে প্রবেশের পূর্বে শহর সংলগ্ন হেমতখালী নামক স্থানে পৌঁছালে ডাকাত দল মাইক্রোবাস চালককে রশি দিয়ে বাঁধার চেষ্টা করে। এ সময় চালক চিৎকার শুরু করলে ডাকাতেরা পালিয়ে যায়। পরে টাউন পুলিশ ফাঁড়ির টিএসআই মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্সসহ ওই মাইক্রো চালক ও হেলপারকে নিয়ে রাত ১২টা থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করে। আটককৃত ডাকাতরা হলো, নওগাঁ জেলার রানীনগর উপজেলার বড়বড়িয়া গ্রামের আকতারুল ইসলামের ছেলে আশিফুল ইসলাম পলক (২৫), গোনা গ্রামের সোলাইমানের ছেলে বিকুল আহম্মেদ (২৫), রানীনগর বাজারের রফিক সোনারের ছেলে সুমন হোসেন (২৫), বেতগাড়ী গ্রামের মৃত জাফর আলীর ছেলে এরশাদ আলী (৩০) এবং আবাদপুকুর গ্রামের জামান উদ্দীনের ছেলে খোকন মোল্লা (৩০)।  সান্তাহার টাউন পুলিশ ফাঁড়ির টিএসআই জানান, ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করা গেলেও পলাতক রয়েছে আরো ২ জন। তাদেরকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এই চক্রটি মাইকো ভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত ডাকাতি করে আসছিল। তিনি আরো জানান, ডাকাতরা মাইক্রো ডাকাতির কথা স্বীকার করে বলেছে, উত্তারঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় তাদের আরো সদস্য রয়েছে। পরে ৫ ডাকাতের  বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

আরও পড়ুন...

নগরীতে জেএসইউএস ও সিডিডি আয়োজিত প্রতিবন্ধিতা ও একীভূত উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের নিয়ে কর্মরত জাতীয় সংগঠন সেন্টার ফর ডিজএ্যাবিলিটি ইন ডেভেলপমেন্ট (সিডিডি) ও সিবিএম এর সহযোগিতায় বেসরকারী মানব উন্নয়ন মূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন যুগান্তর সমাজ উন্নয়ন সংস্থা (জেএসইউএস)’র অংশগ্রহণে “প্রতিবন্ধিতা ও একীভূত উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ”গত ১৯ নভেম্বর ২০২০ ইংরেজী নগরীর দেওয়ানবাজারস্থ সংস্থার প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে জেএসইউএস নির্বাহী পর্ষদের সদস্য ও সংস্থার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে আয়োজিত কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সহ-সভাপতি ফারজানা রহমান শিমু, সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাহী পরিচালক ইয়াসমীন পারভীন, ব্যবস্থাপনা উপদেষ্টা ও পরিচালক কবি প্রাবন্ধিক সাঈদুল আরেফীন, সহ-সাধারণ সম্পাদক আলহাজ ছাবের আহমেদ, নির্বাহী সদস্য শাহানাজ বেগম, সিনিয়র এসিসটেন্ট ডিরেক্টর এম এ আসাদ, এসিসটেন্ট ডিরেক্টর শহীদুল ইসলাম, সংস্থার শাখা ব্যবস্থাপকসহ অপরাপর কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সিডিডি-এর পক্ষ থেকে থিমেটিক এক্সপার্ট মো: জাহাঙ্গীর আলম, সিডিডি’র কোঅর্ডিনেটর ও প্রজেক্ট ম্যানেজার তানবিন আহমেদ, শাহ জালাল, জুনায়েদ রহমান, হীরা বণিক উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালায় প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক ধারণা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অন্তর্ভূক্তি, সংস্থায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অন্তর্ভূক্তি বিষয়ে ধারণা ও সকল কর্মকাণ্ডে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে সম্পৃক্তকরণের পাশাপাশি এ সংক্রান্ত কর্মপদ্ধতি নির্ধারণসহ নানা বিষয়ে আলোচনা করা হয়। কর্মশালাটি পরিচালনা করেন মো: জাহাঙ্গীর আলম। কর্মশালা পরিচালনায় মো: জাহাঙ্গীর আলম বলেন, “বর্তমান সরকারের আন্তরিকতা ও নানা উদ্যোগ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। সরকারের এ সংক্রান্ত অনেক আইন ও নীতিমালা রয়েছে। কিন্তু  সে অনুযায়ি সচেতনতা না থাকায় এর সুফল প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গ পাচ্ছেন না। আমাদের সকলের সম্মিলত প্রচেষ্টায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি সাধিত হতে পারে।” উদ্যোগ নিতে হবে আমাদের সকলকে বলে তিনি মন্তব্য করেন। এ প্রসঙ্গে সংস্থার পরিচালক কবি প্রাবন্ধিক সাঈদুল আরেফীন বলেন, “জেএসইউএস প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। সংস্থা অপরাপর কর্মসূচীতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অংশগ্রহণ এবং তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করে।” ভবিষ্যতে সকল প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধিতা ইস্যুটি সর্বাগ্রে বিবেচনা করা হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি বার্তা প্রেরক মো: আরিফুর রহমান প্রোগ্রাম ম্যানেজার (এসডিপি)