আপডেট :»-
  বাংলা-

বগুড়ায় মাইক্রোবাস সহ ৫ ডাকাত গ্রেফতার

নজরুল ইসলাম মিন্টু বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ ছিনতাই করার উদ্দেশ্যে দিনাজপুর থেকে মাইক্রোবাস ভাড়া করে এনে বগুড়ার সান্তাহারে মাইক্রোবাস চালক ও হেলপারকে বেঁধে রেখে মাইক্রো নিয়ে পালানো হল না পেশাদার ডাকাত দলের। বগুড়ার সান্তাহার টাউন পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ শহরের রেলস্টেশন ও খাড়িরপুল নামক স্থানসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে মাইক্রোবাস যাত্রীবেশী ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার এবং ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে ভাড়া করে আনা মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করেছে। পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে দিনাজপুর মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড থেকে ৭ জনের একদল ডাকাত যাত্রীবেশে (ঢাকা মেট্টো গ-১৪-৫০৯৪ নং) মাইক্রো ভাড়ায় নিয়ে সান্তাহারের উদ্দেশ্য রওনা হয়। মাইক্রোবাসটি রাত ১২টার দিকে সান্তাহার শহরে প্রবেশের পূর্বে শহর সংলগ্ন হেমতখালী নামক স্থানে পৌঁছালে ডাকাত দল মাইক্রোবাস চালককে রশি দিয়ে বাঁধার চেষ্টা করে। এ সময় চালক চিৎকার শুরু করলে ডাকাতেরা পালিয়ে যায়। পরে টাউন পুলিশ ফাঁড়ির টিএসআই মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্সসহ ওই মাইক্রো চালক ও হেলপারকে নিয়ে রাত ১২টা থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করে। আটককৃত ডাকাতরা হলো, নওগাঁ জেলার রানীনগর উপজেলার বড়বড়িয়া গ্রামের আকতারুল ইসলামের ছেলে আশিফুল ইসলাম পলক (২৫), গোনা গ্রামের সোলাইমানের ছেলে বিকুল আহম্মেদ (২৫), রানীনগর বাজারের রফিক সোনারের ছেলে সুমন হোসেন (২৫), বেতগাড়ী গ্রামের মৃত জাফর আলীর ছেলে এরশাদ আলী (৩০) এবং আবাদপুকুর গ্রামের জামান উদ্দীনের ছেলে খোকন মোল্লা (৩০)।  সান্তাহার টাউন পুলিশ ফাঁড়ির টিএসআই জানান, ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করা গেলেও পলাতক রয়েছে আরো ২ জন। তাদেরকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এই চক্রটি মাইকো ভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত ডাকাতি করে আসছিল। তিনি আরো জানান, ডাকাতরা মাইক্রো ডাকাতির কথা স্বীকার করে বলেছে, উত্তারঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় তাদের আরো সদস্য রয়েছে। পরে ৫ ডাকাতের  বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*

error: বাংলার বার্তা থেকে আপনাকে এই পৃষ্ঠাটির অনুলিপি করার অনুমতি দেওয়া হয়নি, ধন্যবাদ